পাহাড়ে কিশোরীদের উন্নয়নে আরো কার্যক্রম বাড়াতে হবে

11

বান্দরবান প্রতিনিধি

বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপিএস) উদ্যোগে আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের কার্যক্রম অবহিতকরণ সভা গত ২৩ নভেম্বর। বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপি এস) উদ্যোগে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের সভা কক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সঞ্জয় মজুমদারের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শেখ সাদেক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কুদ্দুছ ফরাজী, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. অং চালু, সমাজ সেবা বিভাগের উপ-পরিচালক মিলটন মুহুরী, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক ড. সাইফুদ্দিন মোহাম্মদ হাসান আলী, থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতাউল গণি ওসমানী, অন্যানা কল্যাণ সংগঠনের (একেএস) নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রæ নেলী, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের লিয়াজু অফিসার শরীফ চৌহান, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপিএস) মাস্টার ট্রেইনার সুমিত বণিক, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অং চা মং, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলামসহ বিভিন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতাউল গণি ওসমানী বলেন, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপিএস) উদ্যোগে আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের মাধ্যমে নারীদের উন্নয়ন তরান্বিত হচ্ছে আর এ প্রকল্পের কার্যক্রম আরো বাড়ানোর মধ্য দিয়ে নারীদের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। বান্দরবান পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. অং চালু বলেন, সরকারি-বেরসকারি সকলের সমন্বয়ের মাধ্যমেই আমাদের সেবাগুলো নিশ্চিত করতে হবে। বাল্যবিবাহ, প্রজনন স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে হবে। জেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের অনেক কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রজনন স্বাস্থ্য,মাসিক ব্যবস্থাপনা, বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করার ক্ষেত্রে সরকারি-বেসরকারি সমন্বয়ের প্রয়োজনীয়তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের (বিএনপিএস) উদ্যোগে আমাদের জীবন,আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রকল্পের কার্যক্রম বান্দরবানে সুন্দরভাবে পরিচালিত হচ্ছে। শুধু প্রকল্পের কার্যক্রম সচেতনতা বৃদ্ধি নিয়ে বসে থাকলে চলবে না, পাশাপাশি অর্থ বরাদ্ধ বৃদ্ধি করে প্রকল্প এলাকায় কিশোরীদের উন্নয়নে আরো কার্যক্রম বাড়াতে হবে। জেলা প্রশাসক বান্দরবানের সকল এনজিওদের প্রশাসনের সাথে সমন্ধয় করে কার্যক্রম পরিচালনা করার নির্দেশনা প্রদান করেন।