পাহাড়তলী ও ইপিজেডে দুইজনের আত্মহত্যা

8

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর ইপিজেড ও পাহাড়তলী থানা এলাকায় এক তরুণীসহ পৃথকভাবে দু’জন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এর মধ্যে ইপিজেড এলাকায় আত্মহননকারী জাকিয়া চৌধুরী (২০) আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। আর পাহাড়তলীর মো. রাজিব (২৪) আত্মহত্যা করেছেন পারিবারিক কলহের জের ধরে। দু’টি ঘটনাই ঘটে গত বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে।
পুলিশ জানায়, পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে বুধবার দিবাগত মধ্যরাত তিনটার দিকে তিনটায় ইপিজেড থানা এলাকার নেভি কলোনির বাসা থেকে পুলিশ আইআইইউসি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি সাহিত্যের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী জাকিয়ার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে। তিনি ওই এলাকার এটি এম জোবায়ের চৌধুরীর মেয়ে। তার মরদেহ বাসার সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় রশি প্যাঁচানো অবস্থায় ঝুলছিল।
ইপিজেড থানার ওসি কবিরুল ইসলাম জানান, মধ্যরাতে নেভি গেট এলাকার বাসা থেকে আইআইইউসি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়না তদন্তের জন্য লাশ সকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ফরেনসিক মর্গে পাঠানো হয়েছে।
এদিকে, একই রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে নগরীর পাহাড়তলীর সরাইপাড়া এলাকার বাটা গলির বাসায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মো. রাজিব খান (২৪)। তিনি ওই এলাকার মো. আব্দুর রাজ্জাক খানের ছেলে।
পাহাড়তলী থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সরাইপাড়া এলাকায় বাটা গলির একটি ভাড়া বাসা থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর ময়না তদন্তের জন্য মরদেহটি চমেক হাসপাতালের ফরেনসিক মর্গে পাঠানো হয়েছে।