পর্যটকদের ওপর ফি আরোপের কথা ভাবছে থাইল্যান্ড

4

এপ্রিল থেকে বিদেশি পর্যটকদের কাছ থেকে ৩০০ বাথ (৯ ডলার) ফি নেওয়ার পরিকল্পনা করছে থাইল্যান্ড। পর্যটন আকর্ষণ বাড়াতে ও খরচ বহন করতে না পারা বিদেশিদের জন্য দুর্ঘটনা বীমার অর্থ যোগাতে এ পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে বুধবার জানিয়েছে দেশটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের। পর্যটকদের কাছে এশিয়ার অন্যতম পছন্দের গন্তব্য থাইল্যান্ড। করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে দেশটি অর্থনৈতিকভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মহামারীতে তাদের পর্যটন ব্যবসায় ধস নেমেছে। গত বছর দেশটিতে মাত্র লাখ দুয়েকের মতো পর্যটক গেছে, অথচ ২০১৯ সালেই দেশটি প্রায় ৪ কোটি পর্যটক দেখেছিল। ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে দেশটি নানান পদক্ষেপ নিলেও বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের বিস্তৃতি ঝামেলা বাঁধিয়ে দিয়েছে। “ফি-র কিছু অংশ পর্যটকদের যত্নত্তিতে খরচ হবে। পর্যটকদের জন্য বীমা কভারেজ ছিল না, এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি আমরা অসংখ্যবার, তখন তাদের দেখাশোনার ভার আমাদের ওপর এসে বর্তাতো,” বলেছেন থাইল্যান্ডের পর্যটন কর্তৃপক্ষের গভর্নর ইউথাসাক সুপাসর্ন। ফি-র একটা অংশ পর্যটন কাঠামোর আধুনিকায়নে ব্যয় হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। থাইল্যান্ড নভেম্বরে বিদেশি পর্যটকদের জন্য কঠোর কোয়ারেন্টিনের বিধিনিষেধ তুলে দিয়ে ‘শনাক্তকরণ পরীক্ষা অংশ নাও, যাও’ কর্মসূচি চালু করেছিল; কিন্তু ওমিক্রনের বাড়বাড়ন্তের কারণে গত মাসের শেষদিকে ওই কর্মসূচি স্থগিত করে তারা।