পরিকল্পিত পরিবার গঠন সুরক্ষিত মানবাধিকার নিশ্চিত করতে সকলকে সচেতন হতে হবে

103

বান্দরবান : বান্দরবানে থানচিতে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে একটি র‌্যালি উপজেলার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ, কারিতাস লিন প্রকল্প, গ্রীন হিল স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্পের যৌথ আয়োজনের গত বৃহস্পতিবার উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর পূর্তিতে প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন প্রতিপাদ্য নিয়ে আলোচনা সভা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপজেলা প্রধান আনাদির রজ্ঞন বড়–য়া সভাপতিত্ব করেন। উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুমেপ্রু মারমা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ও উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ,প্রেস ক্লাবের সভাপতি অনুপম মারমা, কারিতাস লিন প্রকল্পের কর্মকর্তা লাপ্রাড ত্রিপুরা, গ্রীন হিলের সূর্য হাঁসি মায়ের খুশি প্রকল্পের কর্মকর্তা মংচপ্রæ মারমা, মেডিকেল অফিসার ডা. ইমরান হোসেন,বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক যোহন ত্রিপুরা, শিশু ও মহিলা বিষয়ক দপ্তরে অফিস সহকারি ইমরান হোসেন,থানচি কলেজে প্রফেসার মেনরোয়া ম্রো,প্রমূখ। সভা শেষে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়ন কাজের সাফল্য ও মেধা ভিক্তি অর্জণ করার ৮জনকে পুরস্কার হিসেবে সম্মাননা হাতে তুলে দেন। অন্যদিকে “পরিকল্পিত পরিবার, সুরক্ষিত মানবাধিকার”এ প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বান্দরবানে বিশ্ব¦ জনসংখ্যা দিবস উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার বান্দরবান পৌরসভা কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পৌরসভার মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় ব্যানার ও ফেস্টুন হাতে নিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও বিভিন্ন শ্রেণীপেশার জনসাধারণ অংশ নেয়।পরে দিবসটি উপলক্ষে জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের আয়োজনে ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সহযোগিতায় পৌরসভার হলরুমে আয়োজন করা হয় এক আলোচনা সভা। জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক ডা. অংচালুর সভাপতিত্বে অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী। ডাঃ এস.এম অভিক চৌধুরীর সঞ্চালনায় এসময় পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম কাউছার হোসেন, সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মার্মা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল বান্দরবান জেলা কর্মকর্তা ধনরঞ্জন ত্রিপুরা,পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের জেলা কনসালটেন্ট ডা. নুরুসছাফা চৌধুরীসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও শিক্ষা প্রতিষ্টানের ছাত্র-ছাত্রীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন,ব র্তমানে আমাদের দেশের জনসংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। জনসংখ্যার এ বৃদ্ধির সাথে সাথে আমাদের পরিকল্পিত পরিবার গঠন সুরক্ষিত মানবাধিকার নিশ্চিত করতে সকলকে সচেতন হতে হবে। বক্তারা জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে রুপান্তরিত করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। পরে পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের স্বাস্থ্য কর্মীদের মধ্যে জেলা পর্যায়ে নির্বাচিত ১০ ক্যাটাগরির শ্রেষ্ঠ ১০জন কর্মীকে সনদপত্র প্রদান করা হয়।
চন্দনাইশ : চন্দনাইশে সারা দেশের ন্যায় গতকাল বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে। ১৯৯০ সালের ১১ জুলাই প্রথমবার ৯০টি দেশে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তারই ধারবাহিকতায় নানা আয়েজনের মধ্য দিয়ে এ বছর বাংলাদেশ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন করেছে । পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমকে জোরদার করতে কেন্দ্রীয় থেকে তৃণম‚ল পর্যন্ত সবাইকে একযোগে কাজ করে সেবার মান আরো বাড়াতে হবে। এ জন্য জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে সরকারের পাশাপাশি সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে এগিয়ে আসার আহŸান জানান বক্তারা।

তারা আরো বলেন, দেশে বর্তমান জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশ কর্মক্ষম। বয়স কাঠামোর এই পরিবর্তন আমাদের সামনে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড এর সুফল অর্জনের সুযোগ এনে দিয়েছে। এ সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য মানুষকে দক্ষ জনশক্তি তথা মানবসম্পদে পরিণত করার বিকল্প নেই। গত ১১ জুলাই চন্দনাইশ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনার উদ্যেগে উপজেলা অডিটেরিয়ামে ডা. আবু সাদাত মো. শাকিকের সভাপতিত্বে অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ.ন.ম বদরুদ্দোজা, ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সোলাইমান ফারুকী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এড. কামেলা খানম রূপা ও পৗর মেয়র মাহবুবুল আলম ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান। এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আবু সালেহ মো. ফোরকান উদ্দীন, গিয়াস উদ্দীন, রুবেল ভট্টচার্য, মো. কুতুব উদ্দীন, জামশেদ মো. গাউস, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
নাইক্ষ্যংছড়ি : বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়েছে। “পরিবার পরিকল্পনা জনগনের মতায়ন, জাতীর উন্নয়ন” এ শ্লোগানে গত ১১ জুলাই সকাল সাড়ে ১১ টায় উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসের আয়োজনে ও সূর্যের হাসি ক্লিনিকের সহযোগীতায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ হলরুমে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া অফরিন কচির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. শফিউল্লাহ।

বিশেষ অতিথি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান মেম্বার, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মাহাফুজ রহমান, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা দ্বিতীয় চাকমা ও সূর্যের হাসি ক্লিনিকের ম্যানেজার রাতুল। উক্ত জনসংখ্যা দিবসে জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও শিশু মৃত্যুহার হ্রাসে বিশেষ অবদান রাখায় নাই্যংছড়ি সদরশ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন নির্বাচিত হওয়ায় চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরীকে এবং উপজেলার ৫টি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মধ্যে সেবার মান নিশ্চিত করন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অবদানের জন্য ঘুমধুম ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটি শ্রেষ্ঠ হওয়ায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা রোকসানা ইয়াছমিন রুবিকে সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
দীঘিনালা : জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫বছর:প্রতিশ্রæতির বাস্তবায়ন প্রতিপাদ্যকে ধারন করে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উদ্যোগে দিবসটি উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স থেকে শুরু হয়ে শিল্পকলা একাডেমিতে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ কাশেম।


সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান সীমা দেওয়ান এবং উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নিটু দেওয়ান। আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, বর্তমানে পরিবার পরিকল্পনা শুধু জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রন নয়, এখন মায়ের স্বাস্থ্য, শিশু স্বাস্থ্য, বাল্য বিবাহ বিশাদ আকারে ধারনা দেয়া হয়। আধুনিক স্বাস্থ্য সেবায় পরিবার পরিকল্পনা ব্যপক ভাবে কাজ করে। আলোচনা সভায় শেষে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করায়, পরিবার কল্যাণ সহকারি বিউটি চাকমা, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক মোঃ কামরুজ্জামান, বোয়ালখালি ইউনিয়ন পরিষদ, মেরুং ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, উপ সহকারী কমিউনিটি চিকিৎসা কর্মকর্তা অসীম বড়ুয়া, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শীকা বিন্দু বালা চাকমা এবং বেসরকারী সংস্থা সূর্যের হাঁসি নেটওয়ার্ক কে সম্মাননা পদক ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।