পরলোকে সংস্কৃতিকর্মী ফারহানা পারভীন

62

গ্রুপ থিয়েটার নাট্যাধারের সদস্যা সংস্কৃতি কর্মী ফারহানা পারভীন প্রীতি গত বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃতুকালে তার বয়স হয়েছিল আনুমানিক ৪৩ বছর। দুই সন্তানের জননী ফারহানা পারভীন প্রীতি নাট্যাধারের দল প্রধান সাংস্কৃতিক সংগঠনক দেওয়ান মাশরুজ্জামান মুকুটের সহধর্মিনী। প্রীতি মুঞ্চমুকুট নাট্য সম্প্রদায় ও সমিকরণ থিয়েটারেও কাজ করেছেন। পেশায় তিনি ছিলেন বেসরকারি সংস্থা ‘মমতা’র সহকারী পরিচালক। তার অকাল প্রয়াণে চট্টগ্রামের সংস্কৃতি অঙ্গণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নাট্যাধারের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল যাত্রা জানান, ভারত থেকে হৃদরোগের চিকিৎসা শেষে গত সপ্তাহে দেশে ফেরেন প্রীতি। গত বুধবার বিকেলে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতে তার বাইপাস সার্জারী হয়। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
বাদ আছর পশ্চিম খুলশী জামে মসজিদে মরহুমার নামাজে জানাযা শেষে আকবার শাহ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় সংস্কৃতি কর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নাট্যাধারের মোস্তফা কামাল যাত্রা, মো. বাহাউদ্দিন মিরণ, শাখাওয়াত শিবলী, নাদিরা সুলতানা হেলেন, আসিফ উদ্দিন শুভ, মো. কাউসার মজুমদার, শারমিন সুলতানা রাশা, আশিক আরেফিন, মাসউদ আহমেদ, হারুন উর রশিদ, আনোয়ারুল সোহেল, তুহিন ইসলাম, রিমা পালিত উর্মি, তাসলিমা আক্তার আনসারী, মাহবুব মাহিন, শাহ জালাল উদ্দিন রনি, আজিজ বাবু, জামাল হোসাইন মঞ্জু, জসিম উদ্দিন, মিজানুল হক ডন, মোহাম্মদ আলী, আবৃত্তি শিল্পী দেবাশিস্ রুদ্র, রাশেদ হাসান, হাসান জাহাঙ্গীর, জেলা শিল্পকলা একাডেমি চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা মো. মেসলেম উদ্দিন সিকদার লিটন, নাট্যাভিনেতা তাপস শেখর, সুচরিত দাশ টিংকু, আলোক মাহমুদ, মিশফাক রাসেল, সাবিরা সুলতানা বীনা প্রমুখ। খবর বিজ্ঞপ্তির