পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫০

9

পূর্বদেশ অনলাইন
পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করতোয়া নদীর ওপারে থাকা বদেশ্বরী মন্দিরে পূজা দিতে গিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় স্থানীয়দের সহায়তায় ৫০ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে প্রশাসন। এর মধ্যে ঘটনার দ্বিতীয় দিনে ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলার বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাটে করতোয়া নদী পার হতে গিয়ে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। প্রথম দিনে ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এদিকে সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দিনভর পঞ্চগড় জেলার মাড়েয়া, দেবীগঞ্জ, দিনজপুরের বীরগঞ্জ, খানসামা থেকে আরও ২৫টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জানা যায়, হিন্দু সম্প্রদায়ের বড় উৎসব মহালয়া। অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার জন্য বোদা উপজেলার মাড়েয়া এলাকায় একমাত্র ভরসা নৌকা। কিন্তু সেই নৌকায় উৎসবে মেতে উঠতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মিছিলে পুরো এলাকা জুড়ে নেমে এসেছে শোকের মাতম। এর আগে, রোববার দুপুরে শতাধিক যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটলে রাত ১১টা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করে প্রশাসন ও স্থানীয়রা। ভোর থেকে পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত মরদেহ উদ্ধারের সংখ্যা দাঁড়ায় ৫০ জনে। উদ্ধার হওয়া মরদেহের মধ্যে নারী ২৫ জন, শিশু ১৩ জন এবং পুরুষ ১২ জন অধিকাংশ সনাতন ধর্মাবলম্বী। নিহতরা হলেন- হাতেম আলী (৭০) শ্যামলী রানি (১৪), লক্ষী রানি (২৫), অমল চন্দ্র (৩৫) শোভা রানি (২৭), দিপঙ্কর (৩) পিয়ন্ত (২.৫) রুপালি ওরফে খুকি রানি (৩৫), প্রমিলা রানি (৫৫) অনবালা (৬০) সুনিতা রানি (৬০), ফাল্গুনী (৪৫) প্রমিলা দেবী (৭০), জ্যোতিশ চন্দ্র (৫৫), তারা রানি (২৫), বিষ্ণু (৩), সফলতা রানি (৪০), বিলাশ চন্দ্র (৪৫), শ্যামলী রানি ওরফে শিমুলি (৩৫), উশোশি (৮), তনুশ্রী (৫), শ্রেয়সী, প্রিয়ন্তী (৮), সনেকা রানী (৬০), ব্রজেন্দ্র নাথ (৫৫), ঝর্ণা রানী (৪৫), দীপ বাবু (১০), সূচিত্রা (২২), কবিতা রানী (৫০), বেজ্যে বালা (৫০), দিপশিখা রানী (১০), সুব্রত (২), জগদীশ (৩৫), যতি মিম্রয় (১৫), গেন্দা রানী (৫০), কনিকা রানী (৪০), সূমিত্রা রানী (৪৫), আদরী (৫০), পূষ্পা রানী (৫০), প্রতিমা রানী (৫০), সূর্যনাথ বর্মন (১২), হরিকেশর বর্মন (৪৫), নিখিল চন্দ্র (৬০), সুশীল চন্দ্র (৬৫), যুথি রানী (০১), রাজমোহন অধিকারী (৬৫), রূপালী রানী (৩৮), প্রদীপ রায় (৩০) এবং পারুল রানী (৩২) ও প্রতিমা রানী (৩৯)। পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দ্বীপংকর রায় বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এখন পর্যন্ত ৫০ জনের মরদেহ উদ্ধার ও শনাক্ত করা হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় ২৫ থেকে ২৭ জন এখনো নিখোঁজ রয়েছে। এর আগে রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের আউলিয়া ঘাটের কাছে শতাধিক যাত্রী নিয়ে করতোয়া নদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। নৌকাটির যাত্রীরা মহালয়া পূজা উপলক্ষে দেবীগঞ্জ উপজেলার বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। ওই দিনই ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনাটি তদন্ত করতে রাতে পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দ্বীপংকর রায়কে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে জেলা প্রশাসন। কমিটিকে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবদন জমা দিতে বলা হয়েছে।