‘ন ডরাই’ এর অনুমোদন বাতিলে নির্দেশ নয় কেন : হাই কোর্ট

42

বাংলাদেশে সার্ফিং নিয়ে প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ন ডরাই’ এর সেন্সর অনুমোদন বাতিলের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট। এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ এ রুল দেয়। সেসঙ্গে ‘ন ডরাই-অ্যাডভেঞ্চার অব আয়েশা’ নামের কমিক বুক ও অ্যানিমেটেড ভিডিও বাজার থেকে প্রত্যাহার করতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চেয়েছে আদালত। তথ্যসচিব, আইন সচিব, চলচ্চিত্রটির প্রযোজক মাহবুব রহমান, পরিচালক তানিম রহমানকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে আবেদনে পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জুলহাস উদ্দীন আহমাদ; রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার। পরে জুলহাস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ন ডরাই সিনেমার মূল চরিত্রের নাম আয়েশা। আমাদের প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর সহধর্মিণীর নাম আয়েশা (রা.)। সিনেমায় এই নাম ব্যবহারের মধ্য দিয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়েছেন প্রযোজক-পরিচালক। “তাছাড়া পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এই সিনেমা দেখা যাবে না বলেও গণমাধ্যমে খবর এসেছে। এই যুক্তিতে রিট আবেদনটি করা হয়েছিল।” আপত্তির মুখে একবার সংশোধনের পর গত ২৫ নভেম্বর ‘ন ডরাই’ সেন্সর বোর্ডের অনুমতি পায়।
পরে গত ২৯ নভেম্বর চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ হুজ্জাতুল ইসলাম খান চলচ্চিত্রটির সেন্সর অনুমোদন বাতিলের নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করে গত রোববার হাই কোর্টে রিট আবেদন করেন। গত ৬ ডিসেম্বর কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ছবিটির এক বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশের প্রথমবারের মতো কোনো ছবির ‘বিচ প্রিমিয়ার’ এটি। এতে উপস্থিত ছিলেন ছবির প্রযোজক, পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রী, কলাকুশলীসহ সংশিষ্ট অনেকে।