নো-মাস্ক নো-সার্ভিস মানসম্পন্ন মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা জরুরি

21

সরকারিভাবে ঘোষণা এসেছে সরকারি-বেসরকারি কোন কর্মকর্তা কর্মচারী মাস্ক বিহীন কাজ করতে পারবেন না। দেশের অফিস আদালতে অধিকাংশ লোক মাস্ক পড়ে থাকেন। মাস্ক সরকারি-বেসরকারী অফিসে বাধ্যতা মূলক করা যৌক্তিক। সবাই মাস্ক পরে কাজে যোগদান করাও সম্ভব। কিন্তু সাধারণ মানুষ কতটুকু সরকারি এ নির্দেশনা মানছে এনিয়ে নানা জটিলতা রয়েছে। শহর এলাকার কথা বদা দিলে গ্রাম-গঞ্জের মানুষ মাস্ক পড়তে এখনো অভ্যস্ত হয়ে ওঠেনি। গ্রামের মানুষদের মাস্ক পড়তে বাধ্য করতে হবে প্রশাসনকে। স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধি এবং স্থানীয় প্রশাসন এ বিষয়ে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে পারবেন। দেশের সকল নর-নারী মাস্ক ব্যবহার করলে করোনা ভাইরাস অনেকখানি নিয়ন্ত্রিত থাকবে। তবে একটা মাস্ক কয়দিন পর্যন্ত পড়া যাবে এবং মাস্কের মান সঠিক আছে কি না তা প্রশাসনিক ভাবে নিশ্চিত করা প্রয়োজন।
বাজারে নিম্নমানের মাস্কের সরবরাহ বৃদ্ধি পেয়েছে। মাস্ক পরার উপর সরকারিভাবে গুরুত্ব প্রদান করা হলেও নিম্নমানের মাস্ক করোনা ভাইরাস কতটুকু নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে তা বিবেচনা করা প্রয়োজন। সরকার ইচ্ছে করলে দেশের সকল মানুষের জন্য মান সম্পন্ন মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারেন। আমরা মনে করি সরকারিভাবে উন্নত মানের মাস্ক দেশের সকল নাগরিকের ব্যবহারের জন্য নিশ্চিত করা জরুরি। সমগ্র দেশের মানুষ ঘরে-বাইরে, কাজে-কর্মে, অফিস-আদালতে উন্নত মানেরমাস্ক ব্যবহার করলে আমাদের দেশে করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি অনেকখানি কমে আসবে। তার উপর দেশের সকল নাগরিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবনযাপন করলে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণ সহজ হবে বলে বিশেষজ্ঞদের অভিমত। সরকার দেশের সকল মানুষের জন্য টীকার ব্যবস্থা করতে না পাররেও সরকারিভাবে সবার জন্য মাস্ক সরবরাহ করে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারবে।
মানহীন মাস্ক ব্যবহার করে কারোনার ঝুঁকি এড়ানো যাবে না, তাই বাজারের মাস্ক যেহেতু অধিকাংশ নিম্নমানের, সেহেতু বিশেষ ব্যবস্থায় উন্নতমানের মাস্ক তৈরি করে জনগণের কাছে সরকারি ভাবে মাস্ক সরবরাহ করার উপর গুরুত্ব দিচ্ছে করোনা বিশেষজ্ঞরা। বিষয়টি সম্পর্কে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।