পটিয়া পৌর প্যানেল মেয়রের সংবাদ সম্মেলন

নির্বাচনের মাঠে সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কর্তৃক অপপ্রচারের অভিযোগ

পটিয়া প্রতিনিধি

3

পটিয়া পৌর প্যানেল মেয়র ও ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন, আসন্ন পৌর নির্বাচনের মাঠে ঘায়েল করতে তার বিরুদ্ধে ফেসবুকসহ নানা ভাবে অপপ্রচার চালনো হচ্ছে। ইঞ্জিনিয়ার রূপক কুমার সেন গত ১৬ অক্টোবর শুক্রবার সকালে স্থানীয় একটি রেঁস্তোরায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, ইউছুপ নামের এক ব্যক্তি তার মালিকানাধীন জায়গা থেকে গাছ কাটলেও প্যানেল মেয়রকে জড়িয়ে নানা ধরনের অপপ্রচার চালানো হয়। এব আগেও নানাভাবে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালানো হয়।
আসন্ন নির্বাচনের মাঠে সম্ভাব্য কয়েক প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী এসব ষড়যন্ত্রের পেছনে জড়িত বলে অভিযোগ করলেও তিনি কারো নাম উল্লেখ করেন নি। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, মূলত এলাকার উন্নয়ন কর্মকান্ডকে বাধাগ্রস্ত করতে গুটিকয়েক ব্যক্তি পায়তারা করছেন। তিনি টানা ৪ বার কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়ে জনগণের সেবা এবং এলাকার উন্নয়ন কাজ করছেন। কিন্তু একটি মহল তাতে খুশি নন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ অতীতের মত এবার আসন্ন নির্বাচনেও প্রতিন্দিদ্বীতা করতে চান। কিন্তু নির্বাচনের আগে তারা তার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এসব বিকৃত মনস্ক সম্পন্ন ব্যক্তিদের কাজ। এলাকাবাসীর পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, মোহাম্মদ ইউছুপ। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন প্যানেল মেয়র ও ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুপত সেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, আরব মিয়া, পটিয়া পৌরসভা আ’লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, পৌরসভা প্রজন্মলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, এলাকার উন্নয়ন কর্মকান্ডকে বাধাগ্রস্ত করতে গুটিকয়েক ব্যক্তি নতুন করে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। ২০১৪ সালে মোহাম্মদ ইউছুপ সুচক্রদন্ডী গ্রামে নাল ও পুকুরের ১৩০ শতক ভুমি খরিদ করেন। ২০২০ সালের জুন মাসে ইউছুপ ও আরব মিয়া একই মৌজার ৪৮ শতক ভুমি রনজিত কুমার সেনের কাছ থেকে গাছসহ খরিদ করেন। ওই জায়গা থেকে কিছু গাছ কাটা হয়। গাছ কাটা নিয়ে প্যানেল মেয়রকে জড়িয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন অপপ্রচার চালান। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তার দীর্ঘদিনের সুনাম ক্ষুন্ন করতে প্রতিপক্ষ মহল ষড়যন্ত্র করছে।