এমি কনি ব্যারেট

নির্বাচনের আগেই একটি জয় পেলেন ট্রাম্প

13

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের নতুন বিচারপতি পদে এমি কনি ব্যারেটের নিয়োগ অনুমোদন করেছে দেশটির সিনেট, এতে সাধারণ নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে একটি জয় পেলেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের রিপাবলিকান দলের সিনেটররা ৫২-৪৮ ভোটে এই বিচারকের মনোনয়ন নিশ্চিত করেন, ডেমোক্র্যাটরা সম্মিলিতভাবে বিরোধিতা করলেও বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি।
সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত এই ভোটে শুধু একজন রিপাবলিকান, সিনেটর সুসান কলিন্স ব্যারেটের বিরুদ্ধে ভোট দেন। এরপর রাতে ৪৮ বছর বয়সী ব্যারেট হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পাশে দাঁড়িয়ে শপথ গ্রহণ করেন।
সুপ্রিম কোর্টের আরেক রক্ষণশীল বিচারপতি ক্লেরেন্স থমাস তার নতুন সহকর্মীকে শপথ বাক্য পাঠ করান, জানিয়েছে বিবিসি। এর মাধ্যমে ব্যারেট আজীবন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের একজন বিচারপতি হিসেবে দায়িত্বপালন করার সুযোগ পেলেন। তার নিয়োগে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে রক্ষণশীলদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা আরও দৃঢ় হল। সেখানে এখন রক্ষণশীল বিচারপতির সংখ্যা ৬ জনে দাঁড়াল আর উদারপন্থির সংখ্যা ৩ জন। এই নিয়ে চলতি মেয়াদে ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে তৃতীয় বিচারপতি নিয়োগ দিলেন।
এর আগে ২০১৭ সালে নিল গোরশেচ ও ২০১৮ সাল ব্রেট ক্যাভেনহকে নিয়োগ দিয়েছিলেন তিনি। রক্ষণশীল বিচারপতিদের এই সংখ্যাগরিষ্ঠতার কারণে আগামী কয়েক দশকের জন্য সুপ্রিম কোর্টের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিজেদের অনুকূলে থাকার সুবিধা পাবে রিপাবলিকানরা। গত ১৮ সেপ্টম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ বিচারপতি রুথ বেডার গিন্সবার্গের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনে নিয়োগ পেলেন ইন্ডিয়ানা রাজ্য থেকে আসা ফেডারেল আপিল কোর্টের বিচারক ব্যারেট। জীবদ্দশায় রুথ বেডার গিন্সবার্গ একজন গুরুত্বপূর্ণ নারীবাদী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের উদারপন্থিদের শীর্ষ ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছিলেন। হোয়াইট হাউসের এক্সিকিউটিভ ম্যানশনের দক্ষিণের লনে ব্যারেটের শপথ অনুষ্ঠানটি হয়।
এক মাস আগে হোয়াইট হাউস প্রায় একই ধরনের একটি অনুষ্ঠানে বিচারপতি ব্যারেটকে নিজের মনোনীত হিসেবে ঘোষণা করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। পরে ট্রাম্প নিজেসহ এই অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া অনেকেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন।