ধর্মের আড়ালে মুক্তিযুদ্ধ ও সভ্যতা বিরোধী কর্মকান্ড রুখতে হবে

3

মফিজুর রহমান

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি’র রাষ্ট্রীয় সফরকে কেন্দ্র করে হেফাজত ইসলামের দেশ ও মানবতাবিরোধী ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড ৭১এর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নির্যাতন কে হার মানিয়েছে। তাদের এই দুষ্কর্মের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে মাদ্রাসার কোমলমতি ছাত্রদের। তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে তলোয়ার ও লাঠি এই ছাত্রদের বিপদগামী করে অন্ধকার ও অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।
বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কওমি মাদ্রাসা সনদের স্বীকৃতি দিয়ে হাজার হাজার ছাত্রদের প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে চাকরি লাভের সুযোগ করে দিয়েছেন। এ সুযোগের ফলে কওমি ছাত্ররা এ দেশের নাগরিক হিসেবে মৌলিক অধিকার ফিরে পেয়েছেন। তাদের অগ্নিসংযোগ ও ধ্বংসলীলা অনেকটা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের সামিল। ধর্মের আড়ালে মুক্তিযুদ্ধ ও সভ্যতা বিরোধী কর্মকান্ড প্রতীয়মান হয় আমাদের ইতিহাস ও ঐতিহ্য, ভাষা, সংস্কৃতি, বিজ্ঞানের বিপরীত মেরুতে অবস্থান করছে তারা। এই নতুন পৃথিবীতে সাম্প্রদায়িকতার কোন স্থান নেই। এইটি একটি পুরাতন অচল অস্ত্র, এই অস্ত্র ব্যবহার করে পৃথিবীতে অনেক অবিচার করা হয়েছে কিন্তু তার দিন শেষ হয়ে আসছে। আমাদের বেঁচে থাকতে হলে নতুন পৃথিবীকে গ্রহণ করতে হলে সবার আগে সাম্প্রদায়িকতা কে আস্তাকুঁড়ে ফেলে দিতে হবে। নিজের ধর্মের জন্য মমতা আর সাম্প্রদায়িকতা এক জিনিস নয়। অন্যের ধর্মের জন্য যার শ্রদ্ধাবোধ নেই সে কেমন করে নিজের ধর্মকে ভালোবাসবে?
২০১৩ সালের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের আন্দোলন যখন তুঙ্গে তখন হেফাজত কর্মীরা ঢাকার শাপলা চত্বরসহ দেশের বিভিন্নস্থানে নাশকতা, অগ্নিসংযোগের মাধ্যম ভয়াবহ অরাজকতা সৃষ্টি করেছে। এ দেশের গৌরবময় অধ্যায় বীরত্বের সংগ্রামে এবং অর্জনে এ অশুভ শক্তির কোন অবদান ও সফলতা নেই। সৃষ্টিশীল সম্ভাবনার বিরুদ্ধে তাদের অর্বাচীন ও অপরিপক্ব রাজনীতি আধুনিক ও উন্নত জীবনের অন্তরায়। জানমাল, ইজ্জত, সম্পদ লুণ্ঠনকারী হেফাজত ইসলামের অপরিনামদর্শী, মনুষ্যত্বহীন, মানবতাহীন, অপরাজনীতির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি ।
বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার প্রজ্ঞাময় নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। এক অনন্য উচ্চতায় বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশে পদার্পণ করেছে। ২০৪১ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণ আমাদের অঙ্গীকার।
লেখক: সাধারণ সম্পাদক
চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ