ধর্মীয় সংস্কৃতির প্রসারে অপসংস্কৃতি হ্রাস পাবে

6

 

নগরির উত্তর কাট্টলী আলহাজ্ব মোস্তফা হাকিম কলেজ চত্বরে পঞ্চম দিনের মত অনুষ্ঠিত হয়েছে আহলে বায়তে রাসুল (দ.) স্মরণে শোহাদায়ে কারবালা মাহফিল। আহলে বায়তে রাসূল (দ.) স্মরণে ও মহররম এর গুরুত্ব এবং তাৎপর্য নিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এম মনজুর আলম’র উদ্যোগে ও আলহাজ্ব হোসনে আরা মনজুর ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট এর ব্যবস্থাপনায় দশদিনব্যাপী ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিন বাদ মাগরিব আহলে বায়তের উপর আলোচনা ম্মৃতিচারণ, খতমে কুরআন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোস্তফা হাকিম গ্রুপের পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ নিজামুল আলম রাজু। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ওয়ালিয়া দরবার শরীফের প্রতিষ্ঠাতা পীরে ত্বরিকত, আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ ওয়ালী উল্লাহ আশেকী (ম.জি.আ)। প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জামিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসার শাইখুল হাদীস আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ সোলাইমান আনসারী (ম.জি.আ)। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আনজুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট এর সেক্রেটারী জেনারেল মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল হক, অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব এনামুল হক বাচ্চু। মাওলানা মোহাম্মদ রাশেদ, মাওলানা মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন, মোস্তফা হাকিম গ্রুপের পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ ফারুক আজম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, জামিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসার আরবি প্রভাষক মাওলানা সৈয়দ ইউনুছ রজবী। অনুষ্ঠানে বক্তাগণ বলেন, ‘আরবি মাস মহররম মানে রহমত-বরকতের মাস। এই মাসের রয়েছে ইসলামে বিরল ঘটনা-ইতিহাস। সারা পৃথিবীর মুসলিম উম্মাহ’র নিকট এই মাসটির তাৎপযর্য অপরিসীম। মহানবী হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (স.) এর মক্কা থেকে মদিনায় হিজরতের দিন থেকে এই হিজরি বছর গণনা করা হয়।