ধর্মীয়চেতনা মানুষের জীবনকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়

11

 

সারাবিশ্ব ব্যাপী সনাতন ধর্মের আদর্শ প্রচারকারী ধর্মীয় সংস্থা আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) এর পরিচালক মন্ডলীর অন্যতম জিবিসি ও গুরু শ্রীল জয়পতাকা স্বামী মহারাজ বলছেন, ধর্মীয় চেতনা ধারণ করে জীবনকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে হবে। ভগবানের চরণে নিজেকে সমর্পণ করে কাজ করতে হবে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) ইসকন প্রবর্তক শ্রীকৃষ্ণ মন্দিরে শ্রীশ্রী রাধাকুঞ্জবিহারী ,ললিতা বিশাখা ও গৌর নিতাই শ্রীবিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠা অনুষ্ঠানে প্রধান আশীর্বাদক হিসেবে বক্তব্য প্রদানকালে তিনি একথা বলেন। গুরু মহারাজ বলেন, অনেকদিন পর আমাদের এই বিগ্রহের প্রাণ প্রতিষ্ঠা হচ্ছে। এখানে আমাদের জন্য ভগবান ভগবদ ধাম থেকে অবতরণ করছেন। ভগবানকে আমরা সরাসরি হয়তো দেখতে পাচ্ছি না। তাই বিগ্রহরূপে নিয়ে অবতরণ করছেন যাতে আমরা ভগবানকে দেখতে পাই। বিগ্রহ উদ্বোধনের পর একদিকে পূজারীরা পূজা করবেন, অন্যদিকে আপনারা ভগবানকে দর্শন করবেন। আপনারা সবাই মঙ্গলের জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা করবেন। ভগবান আপনাদের প্রার্থনা অবশ্যই শুনবে। অনেক ভরসা নিয়ে আমাদের মন্দির প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রীধাম মায়াপুর থেকে আগত শ্রীমৎ ভক্তিপুরুষোত্তম স্বামী মহারাজ, বাংলাদেশের সন্ন্যাসী শ্রীমৎ ভক্তিপ্রিয়ম গদাধর গোস্বামী মহারাজ, শ্রীমৎ ভক্তি অদ্বৈত নবদ্বীপ স্বামী মহারাজ, শ্রীমৎ ভক্তিবিনয় স্বামী মহারাজ, শ্রীধাম মায়াপুর থেকে আগত শ্রীমৎ ভক্তি বিজয় ভাগবত স্বামী মহারাজ, ইসকন বাংলাদেশ জিবিসি প্রতিনিধি শ্রীপাদ নাড়ুগোপাল প্রভু, ইসকন বাংলাদেশ সাধারণ সম্পাদক শ্রীপাদ চারুচন্দ্র দাস ব্রহ্মচারী। বাংলাদেশ ইসকনের জাতীয় কমিটির সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন ইসকন মন্দিরের অধ্যক্ষ ও ভক্তবৃন্দরা মন্দিরে এসেছেন। আগামী ৬ আগষ্ট শ্রীল জয়পতাকা স্বামী মহারাজ শ্রীপুÐরিক ধামে যাত্রা করবেন এবং সেখানে ৬ তারিখ থেকে ৯ তারিখ পর্যন্ত অবস্থান করবেন এবং দীক্ষা অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যমণি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।বিজ্ঞপ্তি