ধর্মঘট প্রত্যাহার, খেলায় ফিরছেন ক্রিকেটাররা

15

বিসিবির সঙ্গে বৈঠকে অধিকাংশ দাবি পূরণের আশ্বাস পেয়ে ধর্মঘট স্থগিত করেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।
বাংলাদেশের টি টোয়েন্টি ও টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান জানিয়েছেন, বোর্ডের প্রতিশ্রæতির ভিত্তিতে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা ভারত সফর সামনে রেখে আগামীকাল ক্যাম্পে যোগ দেবেন। আর ঘরোয়া লিগের ক্রিকেটাররা মাঠে ফিরবেন শনিবার থেকে।
জাতীয় ক্রিকেট লিগের তৃতীয় রাউন্ড শুরু হওয়ার কথা ছিল আজ। দুই দিন পিছিয়ে সেটা এখন শুরু হবে শনিবার।
গতকাল বুধবার বিসিবি ভবনে বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে এ সিদ্ধান্ত নেন ক্রিকেটার ও বিসিবি কর্মকর্তারা।
ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের কারণে বাংলাদেশ দলের ভারত সফরের অনুশীলন ক্যাম্প এবং জাতীয় লিগের তৃতীয় রাউন্ড অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এর মধ্যে জাতীয় লিগের তৃতীয় আসর আজ থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল। সেটি আগামী শনিবার শুরু হবে। এছাড়া সাকিবদের ভারত সফরের অনুশীলন ক্যাম্প পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আগামীকাল শুক্রবার শুরু হবে।
ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনা শেষে বিসিবি সভাপতি বলেন, ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে পূরণ করা হবে। তাদের বেশ কিছু দাবি আগেই বলেছি মেনে নেওয়া হবে। বিপিএল আগামী আসর থেকে আগের মতোই হবে। কোয়াব আমাদের হাতে নেই। অন্য দাবিগুলোও মেনে নেওয়া হবে।
তিনি বলেন, খেলার যে সমস্ত অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধার কথা তারা বলেছেন সেগুলো তো বললেই হয়ে যাবে না। সেগুলোর জন্য সময় লাগবে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি একসঙ্গে সবগুলো সুবিধা প্রদান করবো। এছাড়া ক্রিকেটারদের কিছু সমস্যা ছিল যেগুলো আমি নিজেও জানতাম না। আলোচনার মাধ্যমে সেগুলো সম্পর্কে জানতে পারলাম। এগুলো সামনে একটা একটা করে সমাধান করে দেওয়া হবে।
ক্রিকেটাররা গত সোমবার ১১ দফা দাবি উত্থাপন করেন। তার সঙ্গে বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে দুটি দফা যোগ করেছেন তারা। ক্রিকেটাররা বোর্ডের রাজস্বে ভাগ চেয়েছেন এবং নারী ক্রিকেটারদের সমান সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার দাবি তুলেছেন। এ নিয়ে বোর্ড সভাপতি বলেন, আমরা আগের ১১ দফা মেনে নিয়েছি। যেহেতু আজকের (বুধবার) ব্যাপারটা নিয়ে আমরা বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করিনি। তাই এগুলো পরে আবার আলোচনা করে দেখা হবে।
বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা কেমন হয়েছে। তারা খুশি কি-না এমন প্রশ্নে সাকিব আল হাসান বলেন, আলোচনা ফলপ্রসু হয়েছে। বোর্ড সভাপতি আমদের আশ্বাস দিয়েছেন দ্রুততর সময়ের মধ্যে আমাদের দাবি-দাওয়া পূরণ করে দেবেন। যেহেতু এখনও দাবি পূরণ হয়নি তাই খুশি কি-না বলতে পারছি না। আমাদের বেশিরভাগ দাবি-দাওয়া পূরণ হলেই বলবো যে খুশি হয়েছি।
কোয়াবের নতুন সভাপতি-সেক্রেটারির বিষয়ে তিনি বলেন, এখন যেহেতু সবারই খেলা আছে। যখন সকল ক্রিকেটার ফ্রি থাকবেন, নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন তখন নির্বাচন করে নতুন কমিটি ঠিক করা হবে। এছাড়া সমসাময়িক ক্রিকেটারদের মধ্যে বোর্ডের সঙ্গে সবসময় দাবি-দাওয়া নিয়ে আলাপ করার জন্য একজন প্রতিনিধি থাকার কথাও বলেন তিনি। নতুন করে যোগ করা দুই দফা নিয়ে সাকিব বিসিবি সভাপতি পাপনের মতো একই কথা বলেন, বোর্ড পরিচালকরা আলোচনা করে নতুন দাবির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন জানিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন সাকিব।