দ্বিতীয় ডোজ নিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রীসহ ৪৫৯৮ জন

5

করোনারোধী টিকার ২য় ডোজ নিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী। গতকাল বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভ্যাকসিন প্রদান কেন্দ্রে তিনি টিকা নেন। তিনিসহ প্রথমদিনে করোনারোধী টিকা নিয়েছেন ৪ হাজার ৫৯৮ জন।
এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, করোনারোধী টিকার সেকেন্ড ডোজ দেয়ার কার্যক্রম আজ সারা বাংলাদেশে শুরু হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমাদের স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসকরা আপ্রাণ চেষ্টা করছেন করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য। পৃথিবীর অনেকে দেশে এখনও করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া শুরুই হয়নি। কিন্তু আমাদের সেকেন্ড ডোজ চলছে। আমি অনুরোধ করব, যারা ফার্স্ট ডোজ দিয়েছেন তারা সবাই যেন সময়মতো সেকেন্ড ডোজও দেন। আমাদের পর্যাপ্ত টিকা আছে।
করোনার চিকিৎসার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে উপমন্ত্রী বলেন, গত বছর চট্টগ্রামসহ সারা বাংলাদেশে যে পরিস্থিতিটা ছিল, বর্তমানে এ ধরনের পরিস্থিতি নেই। তখন একটা আতঙ্ক এবং শঙ্কার কারণে বেসরকারি হাসপাতালে ডাক্তাররা ছিলেন না। স্বাস্থ্যকর্মীরাও ছিলেন না। এজন্য একটা চাপ সৃষ্টি হয়েছিল। এ বছর যাতে কোনো সমস্যা সৃষ্টি না হয়, সেজন্য আমরা আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। আশা করছি কোনো সমস্যা হবে না।
এদিকে গতকাল চট্টগ্রামে মহানগর ও উপজেলা মিলে করোনা টিকার ২য় ডোজ নিয়েছেন ৪ হাজার ৫৯৮ জন। এছাড়া এই পর্যন্ত ১ম ডোজের টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন ৫ লক্ষ ২১ হাজার ১৮৫ জন। এই পর্যন্ত ১ম ডোজের টিকা নিয়েছেন ৪ লক্ষ ৩৪ হাজার ৬৮৫ জন।
এছাড়া সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এর প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম চৌধুরী, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ডা. ইসমাইল খান, চট্টগ্রাম ফিল্ড হসপিটালের প্রধান উদ্যোক্তা ও নির্বাহী ডা বিদ্যুৎ বড়ুয়া প্রমুখ ২য় ডোজ এর টিকা গ্রহণ করেন।