দেশে একদিনে শনাক্ত ফের ১০ হাজার ছাড়াল

7

পূর্বদেশ ডেস্ক

করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের বিস্তারের মধ্যে পাঁচ মাস পর দেশে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আবার দশ হাজারের ঘর ছাড়িয়ে গেল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সোয়া ৪১ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে ১০ হাজার ৮৮৮ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। নতুন রোগী পাওয়া গেছে দেশের ৬৪ জেলাতেই।
একদিনে এর চেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল সর্বশেষ গত বছরের ১০ আগস্ট, সেদিন ১১ হাজার ১৬৪ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। বুধবার ৯ হাজার ৫০০ জন নতুন রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সে হিসাবে গত একদিনে রোগী বেড়েছে ১ হাজার ৩৮৮ জন, বা ১৪ দশমিক ৬১ শতাংশ।
জানুয়ারির প্রথম দিনও শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ছিল চারশর নিচে, ৬ জানুয়ারি তা হাজার ছাড়ায়, ১৬ জানুয়ারি পেরিয়ে যায় ৫ হাজারের ঘর। এরপর মাত্র চারদিনে তা দ্বিগুণ হল। খবর বিডিনিউজের।
গতকাল বৃহস্পতিবার নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার আরও বেড়ে ২৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ হয়েছে, যা গত বছরের ৫ আগস্টের পর সর্বোচ্চ। সেদিন শানাক্তের হার ছিল ২৭ দশমিক ১১ শতাংশ।
মহামারির বছর গড়ানোর পর ডেল্টার দাপটে বাংলাদেশে দিনে রোগী শনাক্তের হার ৩২ শতাংশে উঠেছিল ২০২১ সালে। তবে এরপর সংক্রমণের হার কমতে কমতে ২ শতাংশের নিচে নেমে এসেছিল।
নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রভাবে ডিসেম্বরের শেষ দিক থেকে আবার তা বাড়ছে। দৈনিক নমুনা পরীক্ষা বাড়লে এই হার ৪০ শতাংশও হতে পারে বলে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের কারও কারও ধারণা।
নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ৫৩ হাজার ১৮২ জনে।গত একদিনে আরও ৪ জনের মৃত্যু হওয়ায় মহামারীতে বাংলাদেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৮ হাজার ১৮০ জনে দাঁড়াল।
সরকারি হিসাবে গত একদিনে দেশে সেরে উঠেছেন ৫৭৭ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত ১৫ লাখ ৫৪ হাজার ৮৪৫ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন।
এই হিসাবে দেশে এখন সক্রিয় কোভিড রোগীর সংখ্যা ৭০ হাজার ১৫৭ জন। অর্থাৎ এই সংখ্যক রোগী নিশ্চিতভাবে সংক্রমিত অবস্থায় রয়েছে। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৫৯ হাজার ৮৫০ জন। ১০ জানুয়ারি ছিল ১৬ হাজার ৭১৩ জন হয়। অর্থাৎ, মাত্র দশ দিনে সক্রিয় রোগী বেড়ে প্রায় চারগুণ হয়েছে।
মহামারির মধ্যে সার্বিক শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ। আর মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭০ শতাংশ। গত একদিনে শনাক্ত রোগীদের মধ্যে ৭ হাজার ৮৪৩ জনই ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা, যা মোট আক্রান্তের প্রায় ৭২ শতাংশের বেশি। এ বিভাগের মধ্যে ঢাকা জেলায় ৭৩৪৯ জন, গাজীপুরে ১২৯ জন, নারায়ণগঞ্জে ১০৭ জনের কোভিড শনাক্ত হয়েছে।
চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলায় ৯৩০ জন, কক্সবাজারে ১৪১ জন; রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী জেলায় ১৫৬ জন, বগুড়ায় ১৩৭ জন এবং সিলেট জেলায় ২২৯ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে গত একদিনে।
যে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাদের একজন পুরুষ, তিনজন নারী। তাদের মধ্যে দুইজন ছিলেন ঢাকা বিভাগের। বাকি দুইজন চট্টগ্রাম বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে একজনের বয়স ৬০ বছরের বেশি, একজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ১ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এবং একজনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ছিল।
বিশ্বে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ইতোমধ্যে ৫৫ লাখ ৬৬ হাজার ছাড়িয়েছে। আর শনাক্ত হয়েছে ৩৩ কোটি ৮০ লাখের বেশি রোগী।