দেশের স্বার্থেই আওয়ামী লীগকে দরকার : আ জ ম নাছির

11

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, ষাটের দশকের তুখোড় দোর্দÐ প্রতাপশালী ছাত্র রাজনীতিক কাজী ইনামুল হক দানু স্বাধীনতা পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে সামরিক শাসক ও স্বৈরাচার অপশক্তির আতঙ্ক হয়ে ওঠেন এবং বার বার অকথ্য নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়েও আমৃত্যু আদর্শের প্রতি অবিচল ও আপসহীন ছিলেন। তাঁর জীবনাদর্শ আজকের রাজনীতিকদের জন্য অবশ্যই অনুসরণীয়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী ইনামুল হক দানুর নবম মৃত্যুবার্ষিকীতে মরহুমের চট্টেশ্বরী রোডে বায়তুশ সালাত জামে মসজিদস্থ কবরস্থানের সম্মুখে মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
এতে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমৃত্যু বিপ্লবী ও ত্যাগী জননেতা কাজী ইনামুল হক দানু আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের অকুতোভয় কান্ডারী। কোন নির্যাতন নিপীড়নে তিনি পরাভব মানেননি। তিনি আত্মকেন্দ্রিক বৈষয়িক চাওয়া-পাওয়া থেকে মুক্ত ছিলেন। দলের সু-সময়েও তিনি আগে যা ছিলেন সেভাবেই সাধারণ জীবনযাপন করে গেছেন। পরিবারের জন্যও পর্যাপ্ত সম্পদ রেখে যাননি। তাঁর মত পরার্থপর এবং দল ও আদর্শের প্রতি নিবেদিত নেতারাই দল ও জাতির সম্পদ। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগকে দেশ ও জাতির স্বার্থ ও অস্তিত্ব রক্ষার জন্যই ক্ষমতায় থাকতে হবে। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কোন বিকল্প নেই। এই ঐক্যই শেখ হাসিনার শক্তির উৎস।
মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, এড. ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা হারুন লুবনা, মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর, বন ও পরিবেশ সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, চসিক ভারপ্রাপ্ত মেয়র আফরোজা কালাম, উপ প্রচার সম্পাদক শহীদুল আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য বখতেয়ার উদ্দিন খান, চকবাজার থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবউদ্দিন আহমদ, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আবুল হাসেম বাবুল, কাউন্সিলর নুর মোস্তফা টিনু, এড. শাহেদুল আজম শাকিল, মরহুমের জ্যৈষ্ঠ সন্তান ও মহানগর যুবলীগ নেতা কাজী রাজেশ ইমরান। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য শফিক আদনান, সৈয়দ হাসান মাহমুদ শমসের, এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, আহমেদুর রহমান সিদ্দিকী, মোহাম্মদ হোসেন, জহুর আহমেদ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। এর আগে মরহুমের কবরের পাশে মসজিদে খতমে কোরআন, মিলাদ অনুষ্ঠিত ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। খবর বিজ্ঞপ্তির