দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা ব্যাহত করতেই গুজব ছড়াচ্ছে কুচক্রী মহল

36

খাগড়াছড়িতে জেলা ও কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের আয়োজনে সাম্প্রতিক গুজব ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে বিশেষ সচেতনতামূলক আইনশৃংখলা সভা গত ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিত হয়েছে। শহরের শাপলা চত্ত¡র মুক্তমঞ্চে গনসচেতনতামূল এ আইনশৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত হয়। খাগড়াছড়ি ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সুপ্রিয় দেবের সঞ্চালনায় এতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) এম. এম. সালাহ উদ্দীন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শানে আলম, পৌর সভার মেয়র মো. রফিকুল আলম, জেলা বার এসোসিয়েশনের সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য এ.ড আশুতোষ চাকমা, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক সুদর্শন দত্ত প্রমুখ। এসময় জনপ্রতিনিধি, ধর্মীয়গুরু, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণসহ জেলা সদরের সাপ্তাহিক হাট-বাজার হওয়ায় সাধারণ মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এ সময় বক্তারা বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন একটি কুচক্রি মহল পদ্মাসেতুতে মাথা প্রয়োজন ও ছেলে ধরা গুজব ছড়িয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে। বাংলাদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা বেহত করতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে প্রযুক্তির অপব্যবহার করছে। জনগনের মধ্যে গণ সচেতনতা বৃদ্ধি ও বিশ্বাস স্থাপন করতে সকল সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় গুরুদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়ে ফেইসবুক ব্যবহার কারিদের সচেতন থাকার পরামর্শ দেয়া হয়।
গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে, আইন নিজের হাতে তুলে নেয়া এবং গণপিটুনি দিয়ে মানুষ মারা এটি একটি ফৌজদারী অপরাধ। ছেলে ধরা সন্ধেহে অথবা গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা তৈরি করা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের সামিল এবং গুজব রটনাকারীদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশের বিশেষ গোয়েন্দা দল অনুসন্ধানে কাজ করছে। যে কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা যেন না ঘটতে পারে ও অপপ্রচারকারির বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে পুলিশের ব্যাবস্থাপনায় লিপলেট বিরতণ করা হয়েছে। এছাড়াও ৯৯৯ এ কল করে যে কোন গুজব ও অসাধু প্রকৃতির মানুষ সন্ধেহ হলে কল করে জানাতে অনুরোধ করা হয়েছে।