দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে করণীয় বিষয়ে সকলকে উদ্বুদ্ধ ও সচেতন করতে হবে

3

হাটহাজারী প্রতিনিধি

দৃশ্যটি দেখে মনে হবে পারে এটি একটি ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। অগ্নিকান্ড বটে, তবে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নয়, এটি অগ্নিকান্ড বিষয়ক মহড়া। যেটি অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রামের হাটহাজারী পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। এতে অংশ নিয়েছিল হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিসের চৌকস অগ্নিনির্বাপক দলের সদস্যরা। গত ১৩ অক্টোবর ‘মুজিব বর্ষের প্রতিশ্রুতি, জোরদার করি দুর্যোগ প্রস্তুতি’ প্রতিপাদ্য বিষয়টিকে সামনে রেখে উক্ত বিদ্যালয় মাঠে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালন করেছে হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং ব্যবস্থাপনা ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সহযোগিতায় দিবসটি উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভার সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহিদুল আলম। উপজেলা সমবায় অফিসার বিজয় কৃষ্ণ নাথের সঞ্চলনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস সিনিয়র স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ শাহাজাহান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আলম বসেক, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবু রায়হান, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. নাবিল ফারাবি, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজমুল হুদা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. শাহ আলম খান ও কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. রিসালাত আহমেদ। এ উপলক্ষে এক আলােচনা সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ভৌগলিক কারণেই দুর্যোগ প্রবণ অঞ্চল। দুর্যোগ হচ্ছে প্রাকৃতিক ও মানব সৃষ্ট বিষয় যার প্রভাবে মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি, প্রাকৃতিক সম্পদের নানাবিধ ক্ষতির সম্মুখীন হয়। দুর্যোগ মোকাবেলায় মানুষের ক্ষয়ক্ষতি প্রশমনে নানাবিধ প্রস্তুতিসহ দুর্যোগ চলাকালীন ও দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে করণীয় বিষয় নিয়ে সকলকে উদ্বুদ্ধ ও সচেতন করতে হবে। দুর্যোগের পূর্ব প্রস্তুতি যত বেশি নেয়া যাবে, দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি তত কমিয়ে আনা সম্ভব। এজন্য মানুষের মধ্যে সচেতনার কোন বিকল্প নেই। আলোচনা সভা শুরুর আগে দিবস উপলক্ষে হাটহাজারী ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের অংশগ্রহণ ভূমিকম্প ও অগ্নিকন্ড বিষয়ক মহড়া অনুষ্ঠিত হয়।