দুই দিন না যেতেই রেললাইনে শাটল ট্রেনের সাথে সিএনজির সংঘর্ষ

13

চবি প্রতিনিধি

নগরীর খুলশীর ঝাউতলা রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনার দুইদিন না যেতেই এবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শিক্ষার্থীদের প্রধান বাহন শাটল ট্রেনের সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে গেলেও কেউ হতাহত হননি। গতকাল সোমবার বিকেলে কদমতলী রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে চট্টগ্রাম পাহাড়তলী রেলওয়ে কন্ট্রোল অফিস।
ঘটনার পর অভিযুক্ত অটোরিকশা চালক মো. সোহেলকে (২৫) আটক করেছে রেলওয়ে পুলিশ। একই সঙ্গে অটোরিকশাটিও জব্দ করা হয়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চবি থেকে শাটল ট্রেনটি চট্টগ্রাম শহরের বটতলী রেলস্টেশনের দিকে যাচ্ছিল। ট্রেনটি যখন কদমতলী লেভেলক্রসিং পার হচ্ছিল তখন একটি অটোরিকশা রেললাইনে উঠে পড়ে। এতে ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। তবে দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। ঘটনার সময় অটোরিকশাটি কদমতলী মোড় থেকে বিআরটিসির দিকে যাচ্ছিল। তাড়াহুড়ো করে উল্টো পথেই গাড়িটি রেললাইনের ওপর তুলে দেন চালক।
বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজিম উদ্দিন পূর্বদেশকে বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশের একটি টিম প্রেরণ করা হয়। তারা অটোরিকশাটি জব্দের পাশাপাশি চালককে আটক করেছে। জিজ্ঞাসাবাদে চালক জানান, তার লাইসেন্স হারিয়ে গেছে এবং গাড়ির কাগজপত্রেরও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এ ঘটনায় রেলওয়ে থানায় সংশ্লিষ্ট ধারায় একটি মামলা দায়ের হবে। ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার (আজ) সকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।
এর আগে, গত শনিবার নগরীর জাকির হোসেন রোডের লেভেল ক্রসিংয়ে নাজিরহাট থেকে বটতলী স্টেশনগামী একটি ট্রেনের সঙ্গে বাস ও অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাফিক পুলিশের এক কনস্টেবলসহ তিনজন নিহত হন। এ ঘটনায় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এবং রেলওয়ে পুলিশ পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করে। একই ঘটনায় বাসচালককে একমাত্র আসামি করে একটি মামলা দায়ের হয়। ওই মামলায় রোববার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে জাকির হোসেন রোডের লেভেল ক্রসিংয়ের গেটম্যান আশরাফুল আলমগীরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।