থাইল্যান্ডে ট্যাক্সির উপর সবজি বাগান

2

পর্যটন-নির্ভর থাইল্যান্ডের রাস্তায় এক সময় ট্যাক্সির রেষারেষি হতো। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যাওয়া পর্যটকদের ট্যাক্সিতে চাপিয়ে সারা জায়গা ঘুরে দেখাতেন চালকেরা। করোনা মহামারির প্রকোপে সেসব আজও বন্ধ। কেউ উপার্জনের বিকল্প সন্ধানে অন্য রাস্তায় হাঁটা দিয়েছেন, তো কেউ একেবারেই বেরোজগার হয়ে এই পরিস্থিতি কাটার অপেক্ষা করছেন। এমতাবস্থায় বেকার পড়ে থাকা ট্যাক্সিগুলোকে অভিনব উপায়ে কাজে লাগিয়ে কাজ হারানো চালকদের উপার্জনের রাস্তা বাতলে দিল একটি সংস্থা। থাইল্যান্ডের রাতচাফ্রুয়েক ট্যাক্সি কো-অপরেটিভ বসে থাকা গাড়িগুলোর ছাদে ও চারপাশে সবজি বাগানই বানিয়ে ফেলেছে। সেখানে সবজি ফলিয়ে যেমন দুবেলা কাজ হারানো চালকদের পেট ভরাতে সাহায্য করছে, তেমন সবজি বিক্রি করে উপার্জনের পথও বের করে দিয়েছে এই সংস্থা।
ট্যাক্সির ছাদে এবং সামনে-পেছনে বাঁশের কাঠামো করে প্রথমে তার উপর কালো রঙের প্লাস্টিক বিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার পর মাটি এবং উপযুক্ত পরিমাণ সার মিশিয়ে সবজি ফলানোর উপযোগী উর্বর মাটি তৈরি করে নিয়েছে। এই মাটিতেই মরিচ, শশা-সহ একাধিক সবজির বীজ ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন তাতে পানি দিয়ে গাছের দেখাশোনা করেন ওই সংস্থার কর্মীরা। বেঁচে থাকা সবজি বিক্রি করেন তাঁরা। ওই সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দীর্ঘদিন পর্যটন শিল্প ধুঁকতে থাকায় বহু ট্যাক্সির ঋণও শোধ করা যায়নি। এভাবে সবজি বিক্রির টাকায় কিছুটা হলেও সেই ঋণ পরিশোধ করা যাবে বলেই মনে করছে সংস্থাটি। ট্যাক্সিগুলোকে কাজে লাগানোর এটাই তাঁদের শেষ উপায়, মনেকরেন থাপাকর্ন আসাওয়ালের্টকুন নামে এক কর্মকর্তা।