তামিমের দুর্দান্ত ব্যাটে প্রথম জয় বরিশালের

8

তামিম ইকবালের দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরিতে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মিনিস্টার গ্রূপ রাজশাহীকে ৫ উইকেটে হারিয়ে প্রথম জয় পেয়েছে ফরচুন বরিশাল। গতকাল শনিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে রাজশাহীর দেয়া ১৩৩ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৯ ওভারে ৫ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নেয় বরিশাল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ফরচুন বরিশাল চার উইকেটে জেমিকন খুলনার কাছে হেরে গিয়েছিল। অন্যদিকে, তিন ম্যাচে এটি রাজশাহীর প্রথম পরাজয়। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২ রানে বেক্সিমকো ঢাকাকে এবং দ্বিতীয় ম্যাচে জেমিকন খুলনাকে ছয় উইকেটে হারিয়েছিল রাজশাহী।
গতকাল জয়ের দিনে বরিশালের অধিনায়ক তামিম ইকবাল ৬১ বলে ১০টি চার ও দুইটি ছক্কার সাহায্যে ৭৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। ১৭ বলে ২৩ রান করেন পারভেজ হোসেন ইমন। রাজশাহীর বোলারদের মধ্যে মুকিদুল ইসলাম ২টি, মেহেদী হাসান ও ইবাদত হোসেন ১টি করে উইকেট শিকার করেন।
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে সপ্তম ওভারের প্রথম বলে দলীয় ৩৯ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৪ রানে সাজঘরে ফিরে যান রাজশাহীর অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। তিন নম্বরে নেমে রনি তালুকদার মেহেদি মিরাজের বলে দলীয় ৬১ রানে ব্যক্তিগত ৬ রানে সরাসরি বোল্ড হন। চার নম্বরে নামা মোহাম্মদ আশরাফুল ব্যক্তিগত রান ৬-তে রানআউট হয়ে ফিরে গেলে একই ওভারে দলীয় ৬২ রানের মাথায় তেড়েফুঁড়ে মারতে গিয়ে নিজের উইকেট হারান ২৭ বলে ২৪ রান করা ওপেনার আনিসুল ইমন। এক রানের ব্যবধানে পরের ওভারে নুরুল হাসান সোহানও রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরেন। দলীয় স্কোর তখন পাঁচ উইকেটে ৬৩। এরপর ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে দলের হাল ধরেন মেহেদি হাসান ও ফজলে মাহমুদ রাব্বি। একপ্রান্তে হাত খুলে খেলতে থাকেন মেহেদি, অন্যপ্রান্ত আগলে রাখেন ফজলে রাব্বি।এই জুটিতে ৫০ বলে ৬৫ রানের সংগ্রহ পায় রাজশাহী। ইনিংসের ১৯তম ওভারে ৩২ বলে ৩১ রানের ইনিংস খেলে দলীয় ১২৬ রানে নিজের উইকেট বিসর্জন দেন ফজলে রাব্বি। শেষ ওভারে কামরুল রাব্বির ইয়র্কার লেন্থের ডেলিভারিতে সরাসরি বোল্ড হন মেহেদি। আউট হওয়ার আগে ৩টি ছয়ের মারে ২৩ বলে ৩৪ রান করেন ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান। শেষপর্যন্ত ৯ উইকেটে ১৩২ রানে থামে রাজশাহীর ইনিংস।
বরিশালের পক্ষে ৪ উইকেট নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। এছাড়া মেহেদি মিরাজ ২টি এবং তাসকিন আহমেদ ও আবু জায়েদ রাহির ঝুলিতে গেছে ১টি করে উইকেট।