তাইওয়ান ইস্যুতে অবস্থান স্পষ্ট করলো রাশিয়া

7

 

তাইওয়ান ইস্যুতে অবস্থান স্পষ্ট করেছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, অন্য বেশিরভাগ দেশগুলোর মতো রাশিয়াও তাইওয়ানকে চীনের অংশ বলে মনে করে। এটিই মস্কোর পররাষ্ট্র নীতি। মঙ্গলবার কাজাখস্তান সফরকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম নিউজ উইক। প্রতিবেদনে বলা হয়, এখন পর্যন্ত মাত্র ১৪টি দেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে তাইওয়ানের। এই তালিকায় ভ্যাটিকানও রয়েছে। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রও ১৯৭৯ সালে বেইজিংকে স্বীকৃতি দেওয়ার পর থেকে তাইপের সঙ্গে কেবল অনানুষ্ঠানিক সম্পর্ক বজায় রেখেছে। চীন-তাইওয়ান বিরোধের সূত্রপাত ১৯২৭ সালে।
ওই সময়ে চীনজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে গৃহযুদ্ধ। ১৯৪৯ সালে মাও সেতুংয়ের নেতৃত্বাধীন কমিউনিস্ট বিপ্লবীরা জাতীয়তাবাদী সরকারকে উৎখাতের মধ্য দিয়ে এ গৃহযুদ্ধের অবসান ঘটায়। জাতীয়তাবাদী নেতারা পালিয়ে তাইওয়ানে যান। এখনও তারাই তাইওয়ান নিয়ন্ত্রণ করে। প্রাথমিকভাবে ওই সময় যুদ্ধ বন্ধ হলেও উভয় দেশই নিজেদের চীনের দাবিদার হিসেবে উত্থাপন শুরু করে। তাইওয়ানভিত্তিক সরকারের দাবি, চীন কমিউনিস্ট বিপ্লবীদের দ্বারা অবৈধভাবে দখল হয়েছে। আর বেইজিংভিত্তিক চীন সরকার তাইওয়ানকে বিচ্ছিন্নতাকামী প্রদেশ হিসেবে বিবেচনা করে।