ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

11

পূর্বদেশ ডেস্ক

বিএনপির মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দিনব্যাপী যানবাহনের দেখা না পাওয়া গেলেও সন্ধ্যার পর থেকে চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জ অংশে সরেজমিনে ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়। সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ পর্যন্ত প্রায় ১২ ঘণ্টা পর মহাসড়ক থেকে সব চেকপোস্ট সরিয়ে নিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে।
গত ৭ নভেম্বর থেকেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে সব ধরনের যানবাহনে যাত্রীদের তল্লাশি করা শুরু করে পুলিশ।
গত শুক্রবার পর্যন্ত দূরপাল্লার বাস চললেও রাত থেকে বন্ধ রাখা হয়েছিল সব গণপরিবহন। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে লোকজনকে। গতকাল শনিবার অনেক কর্মজীবী মানুষ অফিসে যেতে পারেননি। কেউ বা আবার বেশি ভাড়ায় ছোটখাটো পরিবহনে চলাচল করেছেন। তাদের মূল ভরসা ছিল অটোরিকশা।
কাঁচপুরের বাসিন্দা গার্মেন্ট কর্মী সালমা ইসলাম বলেন, আমি আদমজী ইপিজেডে চাকরি করি। আমাদের অফিসে ৮ টার মধ্যে ঢুকতে হয়। তবে আজ (শনিবার) সকালে যা একটা ভোগান্তিতে পড়েছি বলার মতো না। এখন আবার দেখতে পেলাম গাড়ি পাওয়া যাচ্ছে।
এ বিষয়ে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার শিমরাইল ক্যাম্পের টিআই একেএম শরফুদ্দীন জানান, সড়কে কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা যাতে না হয় তাই চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। যানবাহন চলাচলে আমরা কোনো বাধা দেইনি। যান চলাচল এখন স্বাভাবিক রয়েছে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মশিউর রহমান জানান, সকাল থেকেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তল্লাশি চালিয়ে ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে আজ যাত্রী ও যানবাহনের চাপ কম ছিল। সন্ধ্যার দিকে যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। আমরা মহাসড়ক থেকে সব চেকপোস্ট ও পুলিশ সরিয়ে নিয়েছি। খবর বাংলানিউজের