জানুয়ারিতে ক্লিনেস্ট ইস্পাত উৎপাদনে যাচ্ছে জিপিএইচ

25

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ এর রূপরেখা ঘোষণা করেছেন। জিপিএইচ ইস্পাত ২০২০ এর জানুয়ারিতে বিশ্বসেরা কোয়ান্টাম আর্ক ফার্নেস প্রযুক্তির মাধ্যমে ক্লিনেস্ট ইস্পাত উৎপাদন শুরু করে এক বছর আগেই প্রধানমন্ত্রীর মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে একধাপ এগিয়ে যাবে। আর কোম্পানির ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে মুনাফার পরিমাণ ছিল ৮০৬ দশমিক ২০ মিলিয়ন টাকা, যা পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় ২১ দশমিক ৪ শতাংশ বেশি ফলাফল অর্জিত হয়েছে। সেই হিসেবে আমরা প্রত্যেক সূচকেই ভালো করছি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় নগরীর সিটি হল কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত জিপিএইচ ইস্পাত লি. এর ১৩তম বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম এসব কথা বলেন।
তিনি দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক অবস্থান ব্যাখ্যা করে বলেন, গত বাজেটের ঘোষণা অনুযায়ী ভ্যাট, এআইটি অধিকহারে পরিশোধ, অসম প্রতিযোগিতা ইত্যাদি কারণে পণ্য উৎপাদন ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে। দক্ষ মানবসম্পদ ও জিপিএইচ ইস্পাতের আদর্শকে সামনে রেখে আগামীতে দেশকে সেরা প্রোডাক্ট উপহার দিতে সক্ষম হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
সভায় সভাপতিত্ব করেন কোম্পানির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলমগীর কবির। তিনি স্বাগত ভাষণে বলেন, দেশি-বিদেশি প্রকৌশলী, বিশেষজ্ঞগণ, জিপিএইচ এর চ্যানেল পার্টনারগণ ইতিমধ্যে নতুন প্ল্যান্ট পরিদর্শন করে অভিমত ব্যক্ত করেছেন যে, এ ধরনের নিখাদ প্রোডাক্টের জন্য আমরা দীর্ঘদিন ধরে প্রতীক্ষা করছি। তিনি কোম্পানির ক্যাশ ফ্লো ভালভাবেই যাচ্ছে বলে শেয়ার হোল্ডারদের অবহিত করেন।
জিপিএইচ’এর অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মাদ আলমাস শিমুল বলেন, আমরা একটা আন্তর্জাতিক মানের টিম নিয়ে রাউন্ড দ্যা ক্লক কাজ করছি। পাশাপাশি বিদেশি বিশেষজ্ঞদের সাথে দেশি বিশেষজ্ঞদের দক্ষ করে গড়ে তুলছি। তিনি বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও রেগুলেটরি বডিসমূহকে ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানান।
সভায় জিপিএইচ ইস্পাত লি. এর গত ৩০ জুনে সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন, সংশ্লিষ্ট নিরীক্ষা প্রতিবেদন এবং পরিচালনা পর্ষদের প্রতিবেদন সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত ও অনুমোদিত হয়। এছাড়া সভায় ২০১৮-১৯ অর্থবছরে শেয়ার হোল্ডারদের জন্য ঘোষিত ৫ শতাংশ নগদ ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়।
এসময় গ্রূপের পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুর রউফ, মো. আশরাফুজ্জামান, মো. আব্দুল আহাদ, মো. আজিজুল হক, স্বতন্ত্র পরিচালক মুখতার আহমদ, উপদেষ্টা মুশফিক সালেহিন সাদাফ, সাদমান সায়কা সেফা, নির্বাহী পরিচালক (গ্রূপ) এবং কোম্পানি সচিব আবু বকর সিদ্দিক এফসিএমএ, নির্বাহী পরিচালক (প্ল্যান্ট) ইঞ্জিনিয়ার মাদানী এম. ইমতিয়াজ হোসেন, নির্বাহী পরিচালক (ফাইনান্স অ্যান্ড বিজনেস ডেভ্লাপমেন্ট) কামরুল ইসলাম এফসিএ, এবং প্রধান অর্থ কর্মকর্তা এইচ এম আশরাফ উজ জামান এফসিএ, সিএসই’র সাবেক পরিচালক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন এফসিএমএ এবং কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সভায় বহু সংখ্যক শেয়ারহোল্ডার উপস্থিত ছিলেন। আলোচনায় শেয়ারহোল্ডারবৃন্দ কোম্পানির সার্বিক কার্যক্রমে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।