জনগণ ভালো থাকতে চায় আর উন্নয়ন চায়

9

আনোয়ারা প্রতিনিধি

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই, তিনি আবারও আমাকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করার সুযোগ দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে আনোয়ারা-কর্ণফুলীসহ সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। জনগণ এখন ভালো থাকতে চায় আর উন্নয়ন চায়। পেছনে ফিরে যেতে চান না। ইনশাআল্লাহ আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হবে। মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দেবে। ইনশাআল্লাহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বিপুল আসনে বিজয়ী হয়ে আমরা আবারও সরকার গঠন করব। ফলে দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে।
গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় আনোয়ারা-কর্ণফুলী আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে তাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, আপনারা নিরলসভাবে আওয়ামী লীগ এবং নৌকার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আগামীতেও উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। নৌকার বিজয়ে কাজ করতে হবে। এখন থেকে এলাকায় গিয়ে পাড়ায়-পাড়ায়, মহল্লায়-মহল্লায় সাধারণ মানুষের কাছে আওযামী লীগ সরকারের উন্নয়নের কথা বেশি বেশি তুলে ধরতে হবে। যাতে বিরোধীরা সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে বিপথে নিতে না পারে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন আনোয়ারা উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, কর্ণফুলী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক চৌধুরী, আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জসীম উদ্দিন চৌধুরী, ভ‚মিমন্ত্রীর একান্ত সহকারী সচিব রিদোয়ানুল করিম চৌধুরী সায়েম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এমএ মালেক, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান তালুকদার, ভূমিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী এডভোকেট ইমরান হোসেন বাবু, শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সৈয়দ, বারশত ইউপি চেয়ারম্যান এমএ কাইয়ুম শাহ, চাতরী ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আফতাব উদ্দিন চৌধুরী সোহেল, আনোয়ারা উপজেলা যুবলীগের আহŸায়ক শওকত ওসমান, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ রহিমসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
এবারসহ পরপর চারবার নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। মনোনয়ন পাওয়ার পর গতকাল বিকাল চারটায় তিনি চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে আসেন। তিনি বিমানবন্দরে আসার আগেই আনোয়ারা-কর্ণফুলী আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী বিমানবন্দরের ভিআইপি লাইঞ্জের বাইরে সড়কে অবস্থান নেন।
ভূমিমন্ত্রী বিমানবন্দর থেকে বের হয়েই হাত নেড়ে নেতাকর্মীদের অভ্যর্থনার জবাব দেন। এ সময় নেতাকর্মীরা মুহুর্মুহু স্লোগানে বিমানবন্দর এলাকা প্রকম্পিত করে তোলেন। আজ বুধবার তিনি আনোয়ারা উপজেলা নির্বাচন অফিসে মনোনয়ন ফরম জমা দেবেন বলে জানা গেছে।