ছুরির আঘাতে মর্মান্তিক ভাবে খুন গৃহবধূ, স্বামী আটক

30

সন্দ্বীপ প্রতিনিধি:
মধ্যরাতে ঘরে ঢুকে গলায় ছুরি ঢুকিয়ে স্ত্রী রাসেদাকে (২১) নির্মমভাবে হত্যা করেছে স্বামী জিহাদ (২৭)। সন্দ্বীপ থানার ওসি বশির আহমেদ খান জানান, জিহাদ এখন থানায় আটক আছে। তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। জানা গেছে, আসামি জিহাদের অস্থায়ী বাড়ি ছোয়াখালি বেড়িবাঁধ। ১০তারিখ  বুধবার  মধ্যরাতে ঘরে ঢুকে জিহাদ তার স্ত্রী রাসেদাকে গলায় ছুরি ঢুকিয়ে হত্যা করে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রহমতপুর ৬নং ওয়ার্ড রাসেদার বাবার বাড়িতে। রাত থেকে জিহাদ পলাতক ছিলো। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাধারণ জনগণের হাতে জিহাদ গাছুয়া একটি ব্রিকস এর পাশে কেওরা বাগান থেকে আটক হয়। এলাকাবাসীর সূত্রে জনা যায়, জিহাদ মাদকাসক্ত ছিল। ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে রাসেদার বড় বোন পূর্বদেশকে জানান, চিৎকার শুনে আমি আমার রুম থেকে বের হয়ে দেখি আমার বোন রক্তাক্ত অবস্থায়। জিজ্ঞাসা করলে সে বলে তার স্বামী জিহাদ থাকে ছুরির আঘাত করেছে। দ্রুত হাসপাতালের উদ্দেশ্যে বের হলে, যাওয়ার পথে সে মারা যায়। তিন বছর আগে রাসেদা এবং জিহাদ পারিবারিক বন্ধনে আবদ্ধ হয়। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বিয়ের পর থেকে জিহাদ রাসেদাকে শারীরিক নির্যাতন করে আসছে। রাসেদার বড় বোন জানান, তার বোনের সুখের জন্যে একটা সিএনজি এবং তিন ভরি স্বর্ণ জিহাদকে তারা যৌতুক দেয়। কিন্তু থেমে থাকে নি জিহাদ, নানা তালবাহানায় তার স্ত্রীর উপর নানা নির্যাতন চালাতে থাকে। গত দুই বছর আগে রাসেদার পরিবার রাসেদাকে তার বাপের বাড়িতে নিয়ে আসে। তাদের দুই বছরের একটি ফুটফুটে বাচ্চা রয়েছে। রাসেদাকে হারিয়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তাদের পরিবারের মাঝে। এলাকাবাসি হত্যাকারী জিহাদের ফাঁসির দাবি করে সন্দ্বীপ থানার সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।