ছাত্রসমাজকে দেশ-জাতির কল্যাণে নিবেদিত হতে হবে

38

ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম ছোবহানীয়া আলীয়া কামিল (এম.এ) মাদ্রাসা শাখার প্রশিক্ষণ কর্মশালা (টিটিসি) গত ২৪ জুলাই মাদ্রাসা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ছাত্রনেতা হুমায়ুন কবির। প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী ফ্রন্ট চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণের অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ বেলাল হোসাইন। প্রধান প্রশিক্ষক ছিলেন ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম। প্রধান বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান। বিশেষ বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণের শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক ছাত্রনেতা জসিম উদ্দিন। সম্মানিত অতিথি ছিলেন মাদ্রাসা শাখার সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আসহাব উদ্দিন মুরাদ। তারেকুল ইসলাম ও জহিরুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় মাদ্রাসা শাখার নেতৃবৃন্দের মধ্যে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন, সোহাইল উদ্দিন, রাশেদুল ইসলাম, নুরুল আমিন, ছরোয়ার হোসাইন, সাজ্জাদ হোসাইন, মোতাহের হোসাইন, মুহাম্মদ আমিন, নেজাম উদ্দিন, ফোরকান আহমদ,কলিম উল্লাহ, মুহাম্মদ জিসান, আবদুল কাদের প্রমুখ। এ সময় বক্তারা বলেন, ছাত্রজীবন মানুষের জীবন গঠনের প্রস্তুতিকাল। এ সময়েই জীবনের আদর্শ কাঠামো তৈরি করতে হবে, যাতে ভবিষ্যতে দেশ ও জাতির প্রতি দায়িত্ব পালন করতে পারে। আদর্শ ছাত্রছাত্রী তাদের নিজস্ব পরিচয় বহন করে। যাদের মধ্যে অব্যক্তভাবেই ছাত্রত্বের বহিঃপ্রকাশ ঘটে তারাই ছাত্রছাত্রী। তারা দেশের ভবিষ্যৎ; আগামী দিনের কর্ণধার। তাদেরকে দক্ষ রূপে গড়ে তুলতে হবে। বিশেষত: ছাত্ররাজনীতির নৈরাজ্যকর পরিস্থিতিতে আদর্শিক ছাত্রসংগঠন ইসলামী ছাত্রসেনার নেতাকর্মীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গড়ে তোলা হচ্ছে। যাদের চেতনায় থাকবে মনুষ্যত্ববোধের দীক্ষা, দেশপ্রেম, মনমানসিকতা হবে সুন্দর। আচার আচরণ হবে নম্র, ভদ্র, বিনয়ী আর সামগ্রিকভাবে তাদের কর্মে প্রতিফলিত হবে দেশ ও জাতির কল্যাণ ও গঠনম‚লক গবেষণা। এককথায়, এভাবে দেশ-জাতির কল্যাণে নিবেদিত হতে হবে ছাত্রসমাজকে। বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী নির্যাতিত হচ্ছে ও বাংলাদেশ থেকে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান স¤প্রদায়ের ৩ কোটি ৭০ লাখ লোক গুম করা হয়েছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা যে অভিযোগ করেছেন, তা উদ্দেশ্যমূলক ও দেশ বিরোধী গভীর ষড়যন্ত্র। এর বিরুদ্ধে যেমন ছাত্রসেনাসহ সর্বসাধারণকে সোচ্চার থাকতে হবে, তেমনি গুজব সৃষ্টি করে মানুষ খুন, প্রশাসনের ক্রসফায়ারে বিচারহীন মানুষ হত্যা, ইভটিজিং, ধর্ষণ, রাহাজানি, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধেও সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী একমাত্র ইসলামী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা সবসময় দেশের জাতির কল্যাণে নিবেদিত ছিল, আছে এবং থাকবে। বর্তমানে ক্রান্তিকালে ছাত্রসেনার নেতা-কর্মীসহ প্রত্যেক ছাত্রসংগঠনকেও দেশের স্বার্থ রক্ষায় ভ‚মিকা রাখতে হবে। বিজ্ঞপ্তি