ছাত্রলীগ-যুবলীগের ২ নেতা আহত, আটক ১

6

মিরসরাই প্রতিনিধি

মিরসরাইয়ে শিবিরের মিছিল থেকে হামলায় যুবলীগ নেতা ফেরদৌস খান ও ছাত্রলীগ নেতা আনিছুর রহমান রিফাত আহত হয়েছেন। এ সময় স্থানীয়রা হামলাকারীদের একজন আসিবুল হাসানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তিনি উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামের নুর ইসলামের পুত্র। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে উপজেলার ঠাকুরদীঘি বাজারে এই ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, আহত যুবলীগ নেতা ফেরদৌস খান দুর্গাপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আনিছুর রহমান রিফাত একই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি। তাদের মধ্যে আনিছের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে পুলিশের হাতে আটক শিবিরকর্মীকে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা শিবিরের পক্ষ থেকে সাধারণ ছাত্র হিসেবে বলা হচ্ছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে একটি বাসযোগে শিবিরের ৪০-৫০ জন ঠাকুরদীঘি বাজারে একটি ঝটিকা মিছিল ও সমাবেশ করে। এসময় আনিছের ওপর হামলা চালায় শিবিরকর্মীরা। পরে স্থানীয় লোকজন ধাওয়া করে আসিবুল হাসান নামে শিবিরকর্মীকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে।
এদিকে যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলার প্রতিবাদে মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ গতকাল বিকাল ৪ টার দিকে ঠাকুরদীঘি বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে।
উত্তর জেলা শিবির সভাপতি নাজমুল সালেহীন বলেন, বিকৃত ইতিহাস ও অপসংস্কৃতিতে পরিপূর্ণ শিক্ষাক্রম বাতিলের দাবিতে মঙ্গলবার সকালে ঠাকুরদিঘী বাজারে শান্তিপূর্ণ মিছিল ও সমাবেশ করা হয় উত্তর জেলা ছাত্র শিবিরের উদ্যোগে। তবে শান্তিপূর্ণ মিছিল পরবর্তী ১ পথচারী সাধারণ ছাত্রকে ছাত্রলীগ-যুবলীগের ১০-১৫ জন সন্ত্রাসী বেধড়ক মারধর করে। পরবর্তীতে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে মস্তাননগর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে জোরারগঞ্জ থানা নিয়ে যায়। বিনা কারণে ১ জন সাধারণ ছাত্রকে গ্রেপ্তার করায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন বলেন, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭ টায় আনিছুর রহমান নামে একজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তার মাথার পেছনে গুরুতর আঘাত লেগেছে। ৩টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ডান হাতেও আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে।
জোরারগঞ্জ থানার ওসি জাহিদ হোসেন জানান, ঝটিকা মিছিল থেকে হামলার ঘটনায় খাজুরিয়া গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে আসিবুল হাসানকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বাকিদের ব্যাপারে তথ্য নেওয়ার চেষ্টা চলছে এবং মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।