চারদিকে সরকারের পতনের প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে

6

 

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেছেন, বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের কারণে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। বেগম খালেদা জিয়া তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা সংসদে পাস করেছিলেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এই বিধানকে এক তরফাভাবে বাদ দিয়েছে। প্রতিটি রাজনৈতিক দল, এমনকি আওয়ামী লীগও ১৯৯৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারে পক্ষে ছিল। সরকারের দিন শেষ হয়ে এসেছে। চারদিকে এই ভোট ডাকাত সরকারের পতনের প্রতিধ্বনি শোনা যাচ্ছে। সরকারের জন্য দশ নম্বর মহাবিপদ সংকেত চলছে। গত ১ অক্টোবর মাদারবাড়ী শুভপুর বাস ষ্টেশন এলাকায় আগামী ৫ অক্টোবর কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত বিএনপির রোডমার্চ কর্মসূচি সফল করার লক্ষে সদরঘাট থানা বিএনপির লিফলেট বিতরণ পরবর্তী পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সদরঘাট থানা বিএনপির সভাপতি হাজী মো. সালাউদ্দীনের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাউসার হোসেন বাবুর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পথসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহব্বায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আহবায়ক কমিটির সদস্য জয়নাল আবেদীন জিয়া, সাবেক অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক মশিউল আলম স্বপন, তাঁতী বিষয়ক সম্পাদক মো. আলী। উপস্থিত ছিলেন থানা বিএনপির সি. সহ সভাপতি খোরশেদ আলম, সহ সভাপতি ওমর ফারুক রুবেল, আজিজুল হক বাদল, ইব্রাহীম মান্নান মিনু, যুগ্ম-সম্পাদক লোকমান হোসেন বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, ২৯ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, মহানগর কৃষক দলের ১নং সদস্য মো. আজম খান, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহব্বায়ক আনাস জিহান, ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ, রবিউল হোসেন, বিএনপি নেতা মো. শাহজাহান, তছলিম উদ্দীন, যুবদল নেতা আলমগীর সিরাজ, আনোয়ার হোসেন, কমল জ্যোতি বড়ুয়া, নুর জাহেদ বাবলু, তাঁতীদলের আহব্বায়ক আইয়ুব আলী, শ্রমিকদলের সভাপতি মো. বাহার, সাধারণ সম্পাদক সেলিম সম্রাট, থানা যুবদলের আহব্বায়ক মো. ইসমাইল, সি. যুগ্ম আহব্বায়ক নুর খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক ইয়াসির আরাফাত প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি