চাপে কর্মীদের বহাল করলো লিভারপুল

10

করোনাভাইরাসের কারণে ফুটবলের সমস্ত সূচি স্থগিত হয়ে আছে ১৩ মার্চ। কবে করোনা সংকট থেকে পৃথিবী মুক্তি পাবে আর কবে আবার ফুটবল মাঠে ফিরবে কেউ বলতে পারবে না। সব বড় বড় ফুটবল ক্লাব যেমন বড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে, লিভারপুলও ব্যতিক্রম নয়। তাই গত শনিবার ইউরোপ সেরা ইংলিশ ক্লাবটি তাদের খেলার বাইরের প্রায় ২০০ কর্মীকে সাময়িক ছুটি (ফারলাউ) দিয়ে দিয়েছিল। এই সময়টায় কর্মীদের বেতনের শতকরা ২০ ভাগ দেওয়ার কথা, ‘জব রিটেনশন পলিসি’ অনুযায়ী বাকি ৮০ ভাগের দায়িত্ব বর্তায় সরকারের ওপর।
এই সাময়িক ছুটি ঘোষণার পর পরই লিভারপুল যেন সমালোচনার জ্বলন্ত মুখগুলো খুলে দেয়। চারদিক থেকে ক্লাবটির বিরুদ্ধে তিনদিন ধরে চলে নেতিবাচক সমালোচনা। অবশেষে সোমবার এই সাময়িক ছুটি বাতিল করার ঘোষণা দিতে বাধ্য হয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।
সিদ্ধান্ত বদলের সঙ্গে ক্লাবের সমর্থকদের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন লিভারপুলের প্রধান নির্বাহী পিটার মুরস, ‘ আমরা বিশ্বাস করি যে গত সপ্তাহে আমরা একটি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং সেজন্য সত্যি আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।’ মুরস জানিয়েছেন এই কর্মীদের বেতন দিতে বিকল্প উপায় খুঁজে দেখবে ক্লাব।
লিভারপুল এখন বিশ্বের সপ্তম ধনী ক্লাব। গত মৌসুমে কর ছাড়া তাদের লাভ হয়েছে ৪২ মিলিয়ন পাউন্ড অর্থাৎ ৪ কোটি ২০ লাখ পাউন্ড।