চলে গেলেন প্রকৌশলী আলী আশরাফ

13

 

সাদার্ন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য ও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (পুরকৌশল) বিভাগের প্রধান, বিশিষ্ট নগর পরিকল্পনাবিদ প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার এম আলী আশরাফ আর নেই। গত শনিবার রাত ২টায় ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান।
গতকাল রবিবার নগরীর জমিয়তুল ফালাহ জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে বাদ জোহর মরহুমের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়ির জাহানপুরে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।
গুণী এ শিক্ষকের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেন সাদার্ন ভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. নুরুল মোস্তফা, ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান, উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর সরওয়ার জাহান, ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, বিভাগীয় প্রধানগণ, শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ।
এক শোক বার্তায় তারা মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, প্রফেসর আলী আশরাফের ইন্তেকালে দেশের অপূরণীয় ক্ষতি হল। আমরা হারালাম একজন পথপ্রদর্শক ও জ্ঞান প্রদীপ। সাদার্ন ভার্সিটির অগ্রযাত্রায় মহান এ শিক্ষকের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
উল্লেখ্য, সাদার্ন ভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত উপ-উপাচার্য হিসেবে ২০১৬ সালের ৭ আগস্ট যোগ দেন অধ্যাপক আলী আশরাফ। একই সাথে তিনি সিভিল ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। এর আগে ২০১৪ সালে তিনি সাদার্ন ভার্সিটিতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন। তিনি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন ধরে অ্যাডজাঙ্কট ফ্যাকাল্টি হিসেবে কাজ করেন। তাঁর প্রচুর গবেষণামূলক প্রকাশনা দেশ-বিদেশে সমাদৃত। বিভিন্ন সামাজিক ও সংস্কৃতিক কর্মকাÐেও তিনি জড়িত ছিলেন।
অধ্যাপক আলী আশরাফ ১৯৭৬ সালে তৎকালীন চট্টগ্রাম ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি এবং ১৯৮৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যানসাস স্টেইট ইউনিভার্সিটি থেকে নগর এবং অঞ্চল পরিকল্পনায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। প্রফেশন্যাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে (পিইঞ্জ) তিনি বাংলাদেশ প্রফেশন্যাল ইঞ্জিনিয়ারস রেজিস্ট্রেশন বোর্ড কর্তৃক নিবন্ধিত। পেশাগত এবং শিক্ষকতা কাজের অভিজ্ঞতায় অভিজ্ঞ অধ্যাপক আলী আশরাফ চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পি এন্ড ডি’র বিশেষজ্ঞ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স চট্টগ্রাম চ্যাপ্টারের সভাপতি। এছাড়া ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। তিনি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিটি ফর এ্যাডভান্সড্ রিসার্স’র সদস্য ছিলেন। দেশ-বিদেশে পেশাগত কাজ এবং শিক্ষকতায় রয়েছে প্রায় চল্লিশ বছরের অভিজ্ঞতা। দীর্ঘ কর্মময় জীবনে তিনি বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থাসহ জাতিসংঘের অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের সাথে পরামর্শক হিসেবেও কাজ করেন।
অধ্যাপক আলী আশরাফ আমেরিকার যুক্তরাষ্ট্র ও মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশে কাজ করেন। তিনি বিশিষ্ট আইনজীবী মরহুম এডভোকেট নূরুল হুদার জ্যেষ্ঠ পুত্র। বিজ্ঞপ্তি