চলন্তিকা সাহিত্য একাডেমির সাহিত্য আসর ও সংগীতানুষ্ঠান

71

গত ২৫ ডিসেম্বর ‘প্রাণের উচ্ছ্বাসে ও বিজয়ের উৎসবে’ এ শ্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে এবার চলন্তিকা সাহিত্য একাডেমির ৬৮তম সাহিত্য আসর ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। এ উপলক্ষে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে পাহাড়তলী চৌমুহনীস্থ আলোকা ধম্মা বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমগ্র অনুষ্ঠানকে তিনটি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। ১ম পর্বের অনুষ্ঠানে মহান বিজয় দিবস স্মরণে চলন্তিকা সাহিত্য একাডেমির মহাপরিচালক ও সংগঠক সমীরণ বড়ুয়ার সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন কবি ও ছড়াকার আ.স.ম রফিকুল ইসলাম রিজভী। প্রধান অতিথি ছিলেন চলন্তিকা সাহিত্য একাডেমির পরিচালক চিকিৎসক, অধ্যাপক ও কবি ডাঃ পরিতোষ বড়ুয়া । উদ্বোধক ছিলেন বিদর্শন আচার্য্য ও সাহিত্যিক ভদন্ত পঞ্ঞাজীবা ভিক্ষু। প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের গীতিকার শিশু সাহিত্যিক কবি বাসুদেব খাস্তগীর। বিশেষ আলোচক ছিলেন-শিশু সাহিত্যিক ও কবি লিটন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন-প্রবীণ শিক্ষাবিদ ও কবি প্রফেসর ডাঃ সুনীল বিশ্বাস, কবি ও সাহিত্যিক মোঃ আব্দুল মন্নান খান, সংগঠক ও কবি মোঃ শরীফ, নাট্য নির্দেশক আবুল কাশেম, গবেষক ও শিক্ষাবিদ আজাদ খাঁন, গবেষক ও লেখক সুনীল মুৎসুদ্দি, সাংবাদিক, লেখক ও চলন্তিকার পরিচালক সি.আর বিধান বড়–য়া, সংস্কৃতি সেবী ডাঃ মোঃ জাফর আলী, সংগীত শিল্পী রাতুল বৈদ্য, গীতিকার ও ছড়াকার তসলিম রায়হান, সংস্কৃতি সেবী রাতুল দাশ।
এতে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন-ছড়াকার ও শিক্ষক মোঃ সেলিম, প্রকৌশলী শিবলু বড়ুয়া , প্রফেসর ডাঃ সুনীল বিশ্বাস, প্রকৌশলী শ্রাবণ বড়ুয়া , মোঃ শরীফ, এ.কে আজাদ খাঁন, শিক্ষিকা লিকু বড়ুয়া , সুনীল মুৎসুদ্দি, দীন মোহাম্মদ, আবুল কাশেম, আবদুল মান্নান খাঁন, নমিতা বড়ুয়া প্রমুখ। এতে ১মপর্বের অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘ধনধান্যে পুষ্পে ভরা, আমাদেরই বসুন্ধরা’ এই উদ্বোধনী সংগীতটি পরিবেশন করেন-শিল্পী পম্পি বড়ুয়া , ইমন বড়ুয়া , নিলয় বড়ুয়া ও দিঘী বড়ুয়া । অনুষ্ঠানের ২য়পর্বে স্বরচিত লেখাপাঠ, ৩য়পর্বে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশাত্মবোধক, রবীন্দ্র সংগীত, নজরুলগীতি, পল্লীগীতি ও বিজয়ের গান পরিবেশন। ইমন বড়ুয়া পরিবেশিত দেশাত্মবোধক গান-‘ও আমার বাংলা মা তোর আকুল করা রূপের সুধায় যায় গড়িয়ে’; রবীন্দ্র সংগীত-ভালোবেসে সখী নিভৃত যাতনে; আমার নামটি লিখো; আমারো পরাণে যাহা চায়; ও মান্না দে এর বিখ্যাত গান আবার হবে তো দেখা, এ গানগুলো খুবই চমৎকার গেয়েছে।
শিল্পী পম্পি বড়ুয়ার পরিবেশিত দেশাত্মবোধক গান-একাত্তরের মা জননী, কোথায় তোমার মুক্তিসেনার দল? শিল্পী বিধান বড়ুয়ার পরিবেশিত পুরানো দিনের গান-তোমারে লেগেছে এতো যে ভালো ও শিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের প্রখ্যাত গান-এ রাত তোমার আমার গানগুলো খুবই ভালো গেয়েছে। এতে শিল্পীদের মনোমুগ্ধকর পরিবেশিত গানে উপস্থিত দর্শকশ্রোতাদের বেশ আনন্দ দিয়েছে। পরিশেষে তাদের কাছ থেকে আগামীতে আরো নতুন নতুন অনুষ্ঠানের শুভ কামনা করছি। সমগ্র অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন-সমীরণ বড়ুয়া ।