চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে হেলালের হ্যাটট্রিক জেলা পুলিশের জালে অর্ধডজন পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ব্রাদার্স

6

 

নাম চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ হলেও চট্টগ্রামের খেলোয়াড়রা এখানে সংখ্যালঘু। কয়েকটা টিম আছে যাদের একজনও লোকাল প্লেয়ার নাই। স্থানীয় খেলোয়াড় দু’একজন থাকলেও অন্য দলগুলোর বেশিরভাগই বহিরাগত ফুটবলার। একমাত্র ব্যতিক্রম চট্টগ্রাম ব্রাদার্স ইউনিয়ন। তাদের দলে বেশিরভাগই চট্টগ্রামের খেলোয়াড়-গর্বের সাথেই জানালেন কোচ আবু সরওয়ার চৌধুরী।
গতকাল ব্রাদার্সের ২য় ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছেন রাঙ্গুনিয়ার ছেলে হেলাল। এ ম্যাচে ব্রাদার্স ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে জেলা পুলিশকে। লিগে এটি ২য় হ্যাটট্রিক। এর আগে উদ্বোধনী ম্যাচে কাস্টমসের কানন লিগের প্রথম হ্যাটট্রিকের গৌরব অর্জন করেছিলেন, তাও পুলিশের বিপক্ষে। গতকাল ব্রাদার্সের পক্ষে অন্য গোলগুলো করেন সাইমন, আল আমিন ও সাজ্জাদ।
এক তরফা খেলা হয়েছে এ ম্যাচে। ব্রাদার্সের গোছালো খেলার সামনে পুলিশের খেলোয়াড়রা তেমন সুবিধা করতে পারেনি। ফলে যা হবার তাই হয়েছে। যতগুলো সুযোগ তারা মিস করেছে তার অর্ধেকও যদি কাজে লাগানো যেতো তাহলে গোলের সংখ্যা লিখতে দুই ডিজিট ব্যবহার করতে হতো। তবে পুলিশের খেলাতে তেমন সিরিয়াসনেস দেখা যায়নি।
দ্বিতীয়ার্ধের ৯ মিনিটে বদলী হিসেবে মাঠে নেমে হ্যাটট্রিক করলেও হেলাল ম্যাচসেরা হতে পারেনি। ম্যান অব দ্য ম্যাচ অ্যাডজুডিকেটর রঞ্জিত পালের বিচারে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার পেয়েছেন বিজয়ী দলের সাজ্জাদ, তার হাতে ক্রেস্ট তুলে দিয়েছেন সিজেকেএস নির্বাহী কমিটির সদস্য এ.কে.এম আবদুল হান্নান আকবর।
এ জয়ের সুবাদে শিরোপা প্রত্যাশী ব্রাদার্স ইউনিয়ন ২য় রাউন্ড শেষে পূর্ণ ৬ পয়েন্ট নিয়ে এককভাবে লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান নিয়েছে। সমান ৪ পয়েন্ট করে পেয়ে যুগ্মভাবে ২য় স্থানে উদয়ন সংঘ ও বন্দর। ৩ পয়েন্ট করে পেয়েছে কাস্টমস, সিটি কর্পোরেশন ও বিসিআইসি। অপর দলগুলোর মধ্যে মোহামেডান ব্লুজ ২, মুক্তিযোদ্ধা ও কোয়ালিটি ১ পয়েন্ট করে পেলেও এখনো পয়েন্টের মুখ দেখেনি একমাত্র জেলা পুলিশ। আজ থেকে ৩য় রাউন্ডের খেলা শুরু হবে। এখন থেকে ম্যাচের সূচিতেও হচ্ছে পরিবর্তন। আজ থেকে খেলা শুরু হবে বিকেল ৪টার পরিবর্তে সাড়ে ৩টায়। আজকের খেলা: সিটি কর্পোরেশন বনাম উদয়ন সংঘ (৩-৩০টা)।