চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে বন্দরের প্রথম জয় চ্যাম্পিয়ন কাস্টমসের পর হারের গর্তে এবার রানার্স আপ সিটি কর্পোরেশন

18

 

রবিবারই ১-২ গোলে বিসিআইসির কাছে পরাজিত হয়েছিল গত লিগের চ্যাম্পিয়ন কাস্টমস স্পোর্টস ক্লাব। পরদিনই হারের গর্তে পড়ল রানার্স আপ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন একাদশ, তাদের হন্তা চট্টগ্রাম বন্দর কতৃপক্ষ ক্রীড়া সমিতি।
সিজেকেএস-সিডিএফএ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে জিকোর জোড়া গোলে বন্দর নিজেদের দ্বিতীয় খেলায় ৩-১ গোলে সিটি কর্পোরেশনকে হারিয়ে প্রথম জয়ের মুখ দেখে। সিটি কর্পোরেশন তাদের প্রথম খেলায় বিসিআইসি ক্রীড়া সংসদকে হারিয়ে শুভ সূচনা করেছিল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে বন্দর গোলহীন ড্র করেছিল মোহামেডান বøুজের সাথে আর সিটি কর্পোরেশন ৩-০ গোলে হারিয়েছিল বিসিআইসিকে। ফলে দুই খেলা শেষে বন্দরের পয়েন্ট ৪ ও সিটি কর্পোরেশনের ৩।
গতকাল এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় প্রথম এগিয়ে যায় বন্দর। খেলার ৮ মিনিটে সিটি কর্পোরেশনের ডিফেন্সের ভুলে বন্দরের মো. আলী গোল করে দলকে এগিয়ে নেন (১-০)। এ সময় বন্দর অনেকটাই আধিপত্য বিস্তার করছিল। এরই ধারাবাহিকতায় খেলায় ২৩ মিনিটে আবারো গোল পায় তারা। এবার বন্দরের জাকির হোসেন জিকো বক্সের ভেতরে বল পেয়ে বাঁ পায়ে সিটি কিপারকে পরাভূত করেন (২-০)। ৩৬ মিনিটের সময় সিটি কর্পোরেশন আক্রমনে উঠে। এসময় বক্সের ভেতরে তাদের রাসেল আহমদকে ফাউল করেন বন্দরের রিফাত হোসেন। রেফারী বিটুরাজ বড়ুয়া এতে পেনাল্টির বাঁশি বাজান। সিটি কর্পোরেশনের কোটার খেলোয়াড় মো. দিদারুল আলম পেনাল্টিতে গোল করলে স্কোর লাইন হয় ১-২। খেলার ৪২ মিনিটে আরেকটি গোল পায় বন্দর। মাঝ মাঠ থেকে বলের যোগান পেয়ে অফ সাইড ট্র্যাপ ভেদ করে দলের জাকির হোসেন জিকো ঠান্ডা মাথায় আগুয়ান সিটি কিপারের মাথার উপর দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন (৩-১)। এ ইনজুরি টাইমে সিটি কর্পোরেশনের বদলি খেলোয়াড় তৌহিদ ফ্রি কিকে দারুন শট নেন। কিন্তু বল ক্রসবারে লেগে প্রতিহত হলে সিটি কর্পোরেশন একাদশকে হার মেনে মাঠ ছাড়তে হয় এজহারুল হক টিপুর শিষ্যদের কাছে।
খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ ক্রীড়া সমিতির জিল্লুর রহমান জিকু। তার হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন সিজেকেএস সহ-সভাপতি, উপজেলা চেয়ারম্যান সমিতির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি এ.কে.এম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী (বাবুল)।
আজকের খেলা: মোহামেডান ব্লুজ বনাম মাদারবাড়ী উদয়ন সংঘ (বিকাল ৪টা)।