চট্টগ্রাম থেকে হজের প্রথম ফ্লাইটে যাবেন ৪১৯ জন

81

শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে এবার সৌদি আরবের জেদ্দা ও মদিনায় মোট ১৯টি হজ ফ্লাইট যাবে। এর মধ্যে জেদ্দায় যাবে ১২টি, মদিনায় ৯টি।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একজন কর্মকর্তা জানান, রবিবার (৭ জুলাই) বিকেল সাড়ে চারটায় শাহ আমানত থেকে ৪১৯ জন হজযাত্রী নিয়ে জেদ্দার উদ্দেশে উড্ডয়ন করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট।
শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক কাজী খায়রুল কবির বলেন, হজ ফ্লাইটের শিডিউল অনুযায়ী সার্বিক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ফ্লাইট ছাড়ার ৬ ঘণ্টা আগে থেকে শুরু হবে ইমিগ্রেশনসহ আনুষঙ্গিক কার্যক্রম।
তিনি জানান, চট্টগ্রাম থেকে হজের জন্য নির্ধারিত ১৯টি ফ্লাইটের বাইরে আরও ১২টি শিডিউল ফ্লাইটে
হজযাত্রীরা যাবেন। শাহ আমানত থেকে ১০ হাজার হজযাত্রী নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সূত্রে জেনেছি, ইতিমধ্যে হজ ফ্লাইটের ৯ হাজার ৮০০ টিকিট বিক্রি হয়েছে। খবর বাংলানিউজের
সূত্র জানায়, এ বছর ঢাকার বাইরে চট্টগ্রাম ছাড়াও সিলেট থেকে ৩টি হজ-ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। বাংলাদেশ থেকে এ বছর প্রায় ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন পবিত্র হজব্রত পালনে সৌদি আরব যাবেন। হজ-ফ্লাইট ও শিডিউল ফ্লাইটে বিমানে যাবেন ৬৩ হাজার ৫৯৯ জন হজযাত্রী। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ ব্যালটি এবং অবশিষ্ট ৫৬ হাজার ৪০১ নন-ব্যালটি হজযাত্রী বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় সৌদি আরব যাবেন।
ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা রুটে চলাচলকারী বিমানের নিয়মিত শিডিউল ফ্লাইটেও হজযাত্রীরা জেদ্দায় যাবেন। ঢাকা থেকে জেদ্দা প্রতি ফ্লাইটের উড্ডয়নকাল আনুমানিক ৭ ঘণ্টা হবে। দুই মাস ব্যাপী হজ-ফ্লাইট পরিচালনায় শিডিউল ফ্লাইটসহ মোট ৩৬৫টি ফ্লাইট পরিচালিত হবে। এর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে মদিনা ১৮টি ও মদিনা থেকে বাংলাদেশে ১৫টি সরাসরি ফ্লাইট হবে। হজ-ফ্লাইট পরিচালনার জন্য বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা-জেদ্দা উভয় স্থানেই বিশেষ ব্যবস্থার আয়োজন করেছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, হজ মৌসুমে দু’মাসব্যাপী ৩০৪টি ডেডিকেটেড ও ৬১টি শিডিউল ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। ৪ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত প্রি-হজে মোট ১৮৯টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে (ডেডিকেটেড ১৫৭ এবং শিডিউল ৩২)। পোস্ট হজে ১১৫টি ফ্লাইট চলবে ১৭ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত (ডেডিকেটেড ৮৬ ও শিডিউল ২৯)। তার মধ্যে বাংলাদেশ থেকে মদিনা ১৮টি ও মদিনা থেকে বাংলাদেশে ১৫টি সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।
হজযাত্রীদের ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা এবং ঢাকা-মদিনা-ঢাকা রুটে পরিবহনের জন্য বিমানের চারটি নিজস্ব বোয়িং ৭৭৭-৩০০ইআর উড়োজাহাজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) হজ-ফ্লাইটের উদ্বোধনী দিনে ১ হাজার ৪১২ জন হজযাত্রী নিয়ে গেছে বিমান ও সৌদি এয়ারলাইন্সের ৭টি ফ্লাইট।