চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে আটক ৮ জলদস্যু

6

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। ‘রুদ্ধশ্বাস’ এ অভিযানে ৮ জলদস্যুকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে বেশকিছু অস্ত্রসহ একটি ট্রলার জব্দ করা হয়। গতকাল শনিবার বিকেলে চান্দগাঁও সিপিসি-৩ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব-৭ অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এম এ ইউসুফ এসব কথা জানান।
আটকরা হলেন মো. কালু ওরফে গুরা কালু, আজিজুল হক অংক, সাহাব উদ্দিন, নুরুল বশর, শহীদুল ইসলাম, নেজাম উদ্দিন, ছলিম উদ্দিন প্রকাশ বাবুল ও জিয়াবুল হক জিকু।
প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের উপকূলীয় অঞ্চলের কয়েকজন জলদস্যু গত কিছুদিন গা ঢাকা দিয়েছিলেন। স¤প্রতি তারা আবার ফিরে আসেন। উপকূলীয় এলাকায় বসবাসকারী সাধারণ লবণ চাষি ও সাগরের জেলেদের ওপর অত্যাচার, জুলুম, চাঁদাবাজি এবং অপহরণসহ অনেক ধরনের অন্যায় কাজ করতেন তারা।
ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে র‌্যাব শুক্র (১৩ মে) ও শনিবার (১৪ এপ্রিল) ভোরে বাঁশখালী, পেকুয়া ও কুতুবদিয়ার উপকূলীয় অঞ্চলের স্থল ও সাগরপথে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৮ জলদস্যুকে আটক করে। এ সময় একটি ট্রলারসহ তাদের কাছ থেকে তিনটি ওয়ান শুটারগান, একটি দোনলা বন্দুক, তিনটি একনলা বন্দুক, ১১ রাউন্ড গুলি এবং পাঁচটি দেশীয় ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়।
গ্রেপ্তার আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়টি উল্লেখ করে র‌্যাব আরও জানায়, আটক আসামি আজিজ ডাকাত, গুরা কালু এবং ডাকাত সাহাব তিনজন মিলে তিনটি দল পরিচালনা করতেন। এই জলদস্যুরা বাঁশখালী, চকরিয়া, পেকুয়া, কুতুবদিয়া ও মহেশখালী এলাকায় অপকর্ম করতেন। আটক আসামিদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৮-১০টি করে মামলা রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হবে।