চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে একদিনে হাসপাতালে ১২২ জন

12

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরো ১২২ জন। এ নিয়ে চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১০ হাজার ৬৪১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৭৮ জন, চিকিৎসা নিয়ে ফিরে গেছেন ১০ হাজার ৩৪৫ জন এবং এখনো হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২৯৬ জন। গতকাল রবিবার চট্টগ্রাম জেলা সিভিলসার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রতিবেদন অনুযায়ী, গতকাল রবিবার সকাল পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে ৩৪ জন, বিআইটিআইডি হাসপাতালে ১১ জন,জেনারেল হাসপাতালে ১১ জন, সমন্বিত সামরিক হাসপাতালে ৮ জন, উপজেলা হাসপাতালে ১০ জন এবং বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ৪৫ জন নতুন ডেঙ্গুরোগী ভর্তি হয়েছেন। তবে এরমধ্যে ডেঙ্গুতে নতুন করে কোনো মৃত্যুর তথ্য নেই।
চলতি অক্টোবরের প্রথম ৮ দিনে চট্টগ্রামে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৯৬২ জন। এরমধ্যে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। চলতি বছরের সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয়েছিল আগস্ট মাসে। ওই মাসে মোট ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছিল চট্টগ্রামে। তাছাড়া সেপ্টেম্বরে মৃত্যু হয়েছে ২১, জুলাইতে ১৬, জুনে ৬ এবং জানুয়ারিতে ৩ জনের।
চট্টগ্রামের মোট ১০ হাজার ৬৪১ জন ডেঙ্গুরোগীর মধ্যে মহানগরের রোগী ৭ হাজার ৪৩৯ জন এবং উপজেলার ৩ হাজার ২০২ জন। উপজেলার মধ্যে সীতাকুন্ডের রোগী সবচেয়ে বেশি। ১ হাজার ১১৩ জন ডেঙ্গুরোগী সীতাকুন্ডের। তাছাড়া পটিয়া, মিরসরাই, হাটহাজটারী, বাঁশখালী, আনোয়ারায়ও ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়েছে। পটিয়াতে ৩৪৮ জন, হাটহাজারীতে ২৫৮ জন, মিরসরাইয়ে ২০৯ জন, বাঁশখালীতে ১৯৪ জন, আনোয়ারায় ১৫১ জন, লোহাগাড়ায় ১২১ জন, সাতকানিয়ায় ১৩৭ জন, চন্দনাইশে ৬৫ জন, বোয়ালখালীতে ৭২ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ৭৩ জন, রাউজানে ১২১ জন, ফটিকছড়িতে ১৫৩ জন, সন্দ্বীপে ৭৬ জন এবং কর্ণফুলীতে ১১১ জন ডেঙ্গুরোগী চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।