ঘটনাস্থল পরিদর্শনে তদন্ত টিম

4

লামা প্রতিনিধি

লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি তিনটি পাড়ায় জুমক্ষেতে আগুন লাগার কারণ জানতে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের পাঁচ সদস্যের টিম সরজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। টিমের পাঁচ সদস্য ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পাড়াবাসীর সঙ্গে কথা বলে ঘটনার বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেন। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা’র নির্দেশে গঠিত তদন্ত টিম গত মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এরআগে গত ২৬ এপ্রিল আগুন লেগে উপজেলার সরই ইউনিয়নের লাংকম পাড়া, জয় চন্দ্র কারবারী পাড়া ও রেংয়েন কারবারী পাড়াবাসীর প্রায় ১০০ একর জুমক্ষেত পুড়ে যায়। এতে প্রাণ-প্রকৃতির ক্ষতি ও জুমে আবাদ করা ফসল পুড়ে যায়। তবে জুমের এই ভূমি লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ দখলে নিতে আগুন লাগায় বলে অভিযোগ করেন বাসিন্দারা। এই ঘটনায় লামা থানায় মামলা করা হলে ২ আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সম্প্রতি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মো. মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য সিং ইয়ং ¤্রাে, সদস্য বাশৈচিং মারমা, জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জিয়াউর রহমান, ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফের ডিস্ট্রিক্ট ম্যানেজার খুশী রায় ত্রিপুরাসহ একটি পরিদর্শন টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে স্থানীয়দের সাথে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল, সরই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইদ্রিচ, পাড়াপ্রধান, ইউপি সদস্য ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে প্রতি পরিবারকে ৫০ কেজি করে চাল ও ২ লিটার করে পানি দেওয়া হয়। ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে টিমের সদস্যরা পাড়াবাসীর কাছে খাদ্য সংকটসহ বিভিন্ন বিষয় জানতে চান এবং আগুন লাগার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পরিদর্শন টিমের সদস্য ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর বলেন, গণমাধ্যমে তিন পাড়ায় খাদ্য সংকটের সংবাদে পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের নির্দেশে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট পরিদর্শন টিম গঠন করা হয়। এই টিম আগুন লাগার কারণ অনুসন্ধান ও পাড়ার সার্বিক অবস্থা পরিদর্শন করে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করবে।