গাছ লাগান পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করুন

2

মুজিববর্ষে অঙ্গীকার করি, সোনার বাংলা সবুজ করি এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানে কেরানীহাট-বান্দরবান-চিম্বুক সড়কের শোভাবর্ধনকারী বিভিন্ন প্রজাতির চারারোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। গত ১৭ জুলাই বান্দরবান জেলা প্রশাসন ও বনবিভাগের আয়োজনে যৌথখামার এলাকার সড়কের পাশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ফুলের চারা রোপন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজা সরোয়ার,পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. লুৎফুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেট্র সুরাইয়া আক্তার সুইটি, বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা উপ-বন সংরক্ষক মো. ফরিদ মিয়া, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়েসুর রহমান প্রমুখ। এদিকে জেলা প্রশাসন ও বনবিভাগের কর্মকর্তারা জানান, কেরানীহাট-বান্দরবান-চিম্বুক সড়কের ও বান্দরবানের ৭ উপজেলার সড়কের দুইপাশে সৌন্দর্য্য শোভাবর্ধনকারী বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের ১ লক্ষ চারা রোপন করা হবে। এদিকে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, গাছ হলো আমাদের জীবনের সবচেয়ে বড় বন্ধু। গাছ অক্সিজেন দিচ্ছে বিদায় আমরা নিঃশ্বাস গ্রহণের মাধ্যমে বেঁচে আছি, তাই দেশকে বাঁচানোর জন্য অবশ্যই প্রতিটা মানুষের উচিত গাছ রোপণ করা। গাছ রোপণের এ মহৎ উদ্যোগকে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। পার্বত্যমন্ত্রী আরো বলেন, এসব চারা লাগানোর পরে স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের সবাইকে গাছের চারাগুলোর যত্ন নিতে হবে। বাঁচ্চাদের যে ভাবে লালন পালন করা হয় ঠিক তেমনি ভাবে এসব গাছের চারাগুলোকে লালন পালন করতে হবে। গাছ প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করে তাই সবাইকে বেশী বেশী করে গাছ লাগাতে হবে। এসব চারা যাতে সুস্থ ও স্বাভাবিক ভাবে বেড়ে উঠতে পারে তার জন্য উপযুক্ত পরিচর্যা করার পাশাপাশি বান্দরবানকে আরো সুন্দর করার জন্য বেশি বেশি করে গাছ রোপণ করার আহবান জানান মন্ত্রী।