খেটে খাওয়া মানুষের জয়গান করেছেন ফকির আলমগীর

4

 

উপমহাদেশের জীবনমুখী ও মৌলিক গানের শিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আলমগীর’র শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেছেন, ‘জীবনমুখী ও শ্রেণী সংগ্রামের গান পরিবেশন করে কিংবদন্তির খেতাবে উপাধি পেয়েছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত কালজয়ী শিল্পী ফকির আলমগীর। মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে দেশের জন্য স্বাধীনতা এনেছেন পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা থেকে এক বিন্দু বিচ্যুতি হননি তিনি। সারাজীবন দেশের খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে জয়োগান গেয়েছেন ফকির আলমগীর।’ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, ‘যেখানে শোষক ও স্বৈরাচারের আগ্রাসন সেখানে দুর্বার বেগে ছুটে গিয়ে তার জীবনমুখী ও মৌলিক গান গেয়ে এ দেশের শোষিত মানুষদের আন্দোলিত করেছেন। জীবিতকালে তিনি স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য আগ্রহ পোষণ করেছিলেন।’ আগামীর মহান স্বাধীনতা দিবসে এ ক্ষণজন্মা শিল্পীকে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পুরস্কার স্বাধীনতা পদক প্রদান করার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহŸান জানান। বঙ্গবন্ধু একাডেমি কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজনে শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ ড. শেখ এ. রাজ্জাক রাজু। বঙ্গবন্ধু একাডেমি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ দিদার আশরাফীর সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন চসিক সাবেক প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিল অধ্যাপিকা রেখা আলম চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম আইন সাবেক জিএস ও নগর যুবলীগ নেতা সুমন দেবনাথ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি প্রবরাজ বড়ুয়া। এতে আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী, সাংবাদিক আলী আহমেদ শাহিন, বীমাবিদ এস এম হাসান উদ্দিন, অধ্যাপক শিব প্রসাদ, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম খান, রিমন মুহুরী, হারুন রশিদ, সজল দাশ, মহিউদ্দিন আহমদ, রতন ঘোষ, শিল্পী নায়ারন দাশ, অচিন্ত্য কুমার দাশ, শংকর কান্তি দাশ, শিমুল দাশ, দীপক পালিত প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি