‘খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির’ ১৫ মে. টন চাল গোপনে পাচার চেষ্টা

9

রাঙামাটি প্রতিনিধি

সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল নিয়ে চট্টগ্রামের দেওয়ান হাট সিএসডি থেকে রাঙামাটি নেওয়ার পথে চুরি হয়ে যাওয়া চালবোঝাই ট্রাকসহ চালককে আটক করেছে পুলিশ।
জানা গেছে, গত ২৮ জুন, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ১০টার দিকে নগরীর বাকলিয়া থানার রাজাখালীর একটি চালের আড়ত থেকে চালসহ (ঝিনাইদাহ- ট ১১-১০১১) ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। আটকৃত চালকের নাম কামরুল রানা(২৪)। তিনি হাটহাজারীর চৌধুরী হাটের মোঃ ইকবাল হোসেনের পুত্র।
সূত্রে জানা গেছে, শহরের দেওয়ান হাট থেকে ১৫ মেট্রিক টন চাল নিয়ে ট্রাকটি রাঙামাটিতে আসার কথা। কিন্তু তা না করে হারুন এন্টারপ্রাইজ ও রাঙামাটি খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তাদের যোগসাজশে চোরাই চাল বিক্রির উদ্দেশ্যে সে ট্রাকটি নগরীর বাকলিয়া একটি চালের আড়তে নিয়ে গেলে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। বাকলিয়া থানার পুলিশ চালসহ ট্রাকের চালককে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।এ ব্যাপারে চট্টগ্রামের বিভাগীয় একজন কর্মকর্তা মোঃ জহিরুল ইসলামকে তার ব্যবহৃত মোবাইলে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। রাঙামাটি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কানিজ জাহানকেও তার মোবাইল নম্বরে ফোন করা হলে তিনিও ফোন রিসিভ করেননি। তাই তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
রাঙামাটির তবলছড়ি ভারপ্রাপ্ত খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা পিনাকী দাস বলেন, মিডিয়াতে কিছু বলতে হলে উপরের অর্ডার লাগে। অনেক গরিমসির পরে চট্টগ্রমে চুরি হওয়া ১৫ মেট্রিক টন চাল বোঝাই ট্রাক সম্পর্কে তিনি কিছুই বলতে রাজী হনননি। তবে তার কথাবার্তায় এ ব্যাপারে অবহিত বলে মনে হয়েছে।
এর আগে গত ২৮ জুন চট্টগ্রামের দেওয়ান হাট ও হালি শহর থেকে ১৬টি ট্রাকে ২৩৪ মেট্রিক টন চাল এই গুদামে হস্তান্তর করা হয়েছে।
সরকারের চাল নিয়ে এখানে বড় একটি সিন্ডিকেট কাজ করছে। শক্ত হাতে দমন করলে এই সিন্ডিকেটটি ধরা সম্ভব বলে মনে করেন সচেতন মহল।
চট্টগ্রাম বাকলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃ আবদুর রহিম জানান, গত রাতে চুরি হওয়া চালসহ ট্রাক চালককে আটক করে পুলিশ। এগুলো সরকারি চাল। যাওয়ার কথা রাঙামাটিতে, সেখানে না গিয়ে চট্টগ্রামের বাকলিয়ায় বিক্রির উদ্দেশ্যে নিয়ে আসা হয়। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।