ক্যান্সার চিকিৎসায় উৎকর্ষ আনতে গবেষণা দরকার

7

নিজস্ব প্রতিবেদক

সময় পরিবর্তন হচ্ছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে রোগ, রোগের ধরণ, চিকিৎসা এবং রোগের গতি-প্রকৃতিও পরিবর্তন হচ্ছে। তদুপরি এর বিপরীতে পৃথিবীর চিকিৎসা বিজ্ঞানও এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের দেশেও ক্রমশ চিকিৎসা বিজ্ঞান ও চিকিৎসা সেবায় উৎকর্ষতা আসছে। ক্যান্সার একটি বিশেষায়িত রোগ। তাই এ রোগের চিকিৎসায় উৎকর্ষতা আনতে গবেষণার কোনো বিকল্প নেই। গবেষণার মাধ্যমেই বের হয়ে আসবে আধুনিক ও উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ক্যান্সার বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত প্রথম অনকো কনফারেন্সে বক্তারা এসব কথা বলেন।
প্রধান অতিথি অধ্যাপক ডা. ইসমাইল খান বলেন, ক্যান্সার একটি বিশেষায়িত রোগ। এটি রোগীর বয়স ও রোগীর শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী ভিন্ন আঙ্গিক ধারণ করে। এসব চিহ্নিত করতে দরকার হয় গবেষণা। প্রয়োজন হয় সমন্বিত চিকিৎসা। আজ এই কনফারেন্সে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর অভিজ্ঞ এবং খ্যাতিমান অনেক চিকিৎসক তাৎপর্যপূর্ণ বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন। আমি মনে করি, গবেষণাধর্মী এসব বক্তব্য আগামিতে ক্যান্সার চিকিৎসায় বিশেষ ভূমিকা রাখবে।
গতকাল শুক্রবার সকালে নগরের রেডিসন ব্লু হলে শুরু হওয়া কনফারেন্স শেষ হয় রাতে। কনফারেন্সে বিভিন্ন সেশনে ১৯টি বিষয়ের ওপর বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়।দিনব্যাপী প্রথম অনকো কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডা. ইসমাইল খান, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন, জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সাবেক পরিচালক দেশের খ্যাতিমান ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এম এ হাই, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. শাহেনা আকতার, চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম আহসান। কনফারেন্স আয়োজন কমিটির সভাপতি ও ক্যান্সার বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সাজ্জাদ মোহাম্মদ ইউসুফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভা সঞ্চালনা করেন চমেক হাসপাতালের ক্যান্সার বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. আলী আসগর চৌধুরী। কনফারেন্সে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. গোলাম মহিউদ্দিন ফারুক।