কোভিড-১৯ : ভারতে এক সপ্তাহেই মিলল ২৭ লাখের বেশি রোগী

6

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারতে টানা দ্বিতীয় দিন ৪ লাখের বেশি কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হওয়ার খবর দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। শুক্রবার স্থানীয় সময় সকালে মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরও ৪ লাখ ১৪ হাজার ১৮৮ জনের দেহে ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে বলে জানানো হয়েছে। দৈনিক শনাক্তে এটিও নতুন বিশ্ব রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে সরকারি হিসাবেই মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়ে গেছে; যার মধ্যে ২৭ লাখ ২৮ হাজার রোগী শনাক্ত হয়েছে শেষ ৭ দিনে। মহামারীর বিস্তার এখন ভারতের পশ্চিম অংশ থেকে ক্রমশ পূর্ব দিকে সরছে বলে এক দিন আগে সতর্ক করেছে ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে। আর বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ভারতে সংক্রমণ এখন ঘনবসতিপূর্ণ শহর ছাড়িয়ে দুর্গম গ্রামগুলোতেও ছড়িয়ে পড়ছে। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ জনসংখ্যার এই দেশে ৭০ শতাংশ মানুষের বসবাস গ্রামে। সংক্রমণ মোকাবেলায় দেশটিতে জানুয়ারি থেকে নাগরিকদের কোভিড টিকা দেওয়া শুরু হলেও সরবরাহের ঘাটতি ও পরিবহনজনিত সমস্যায় সম্প্রতি এ কর্মসূচির গতি অনেকখানিই কমে এসেছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় ভারতজুড়ে কঠোর লকডাউন দেওয়ার দাবি উঠলেও অর্থনৈতিক ক্ষতি এড়াতে দেশটির সরকার সে পথে হাঁটতে চাইছে না বলে ইঙ্গিতও মিলেছে। হাসপাতালে শয্যা ও অক্সিজেনের ঘাটতি, ওষুধের সংকটের কারণে দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে মৃত্যুও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজার ৯১৫ মৃত্যু নিয়ে দেশটিতে সরকারি হিসাবেই কোভিড-১৯ এ প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৮৩তে। আক্রান্ত-মৃত্যুর এ সরকারি হিসাবের সঙ্গে একমত নন বিশেষজ্ঞরা। তাদের হিসাবে, ভারতে প্রকৃত আক্রান্তের সংখ্যা কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্যের অন্তত ৫ থেকে ১০ গুণ বেশি হবে।