কেন বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ চলাকালে এভাবে দাঁড়িয়ে যায় ডিম?

31

আচ্ছা ধরুন আপনাকে একটি কাজ দেয়া হলো, যে ডিমকে সোজা করে দাড় করাতে হবে। এমনকি তা কোনো কিছুর সাহায্য ছাড়াই। ভেবে বলুন, করতে পারবেন? উত্তরটা কি না?
হ্যাঁ, শত চেষ্টা করেও ডিমের সরু দিকটি সোজা দাঁড় করিয়ে দেয়া যায় না। কিন্তু জানেন কি? সূর্যগ্রহণের সময় নাকি ডিম এমনিতেই দাঁড়িয়ে যায়। আর এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যাও রয়েছে।
গত ২৬ ডিসেম্বর,২০১৯ বৃহস্পতিবার হয়ে যাওয়া সূর্যগ্রহণের সময় সারাবিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই পরীক্ষা চালিয়েছেন অনেকেই। অনেকেই ডিম নিয়ে ওই পরীক্ষার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করেছেন। কেউ মাটিতে, কেউ প্লেটে, কেউ বা আবার জানালার ধারে এই পরীক্ষা করেছেন।
মালয়েশিয়ার এক বাসিন্দা ফুটপাথের উপরেই এ পরীক্ষাটি করেছেন। যদিও মালয়েশিয়ান সায়েন্স ইউনিভার্সিটির অবসরপ্রাপ্ত গবেষক ড. চং হন ইউ এই ঘটনার কোনো বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা নেই বলে জানিয়েছেন। তার মতে, শুধু সূর্যগ্রহণের সময় নয়, যেকোনো সময় এই পরীক্ষা করা হলে, একই রকমভাবে সফল হওয়া সম্ভব।
তবে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যায় বলা হয়েছে, চাঁদ যখন সূর্যকে সম্পূর্ণভাবে ঢেকে দেয়, তখন যে শক্তিশালী মধ্যাকর্ষণ তৈরি হয়, তার প্রভাবেই নাকি ডিম এভাবে সোজা দাঁড়িয়ে পড়তে পারে। বিশেষ করে মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় বহু মানুষ এই পরীক্ষা করেছেন সূর্যগ্রহণের সময়।
গত বৃহস্পতিবার ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে দেখা গেছে এই বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ। যেটি ১৭২ বছর পর হয়েছে। যাতে তৈরি হয়েছে রিং অফ ফায়ার। সারাবিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এর সাক্ষী হয়েছে। সূত্র : ইন্টারনেট