কৃষকের ধান কেটে দিলেন আ.লীগ ও যুবলীগ নেতৃবৃন্দ

4

 

রাউজান : করোনাকালে লকডাউনে কারনে শ্রমিক সংকটে জমির ধান ঘরে তুলতে না পারা রাউজানের পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ১১০ কানি জমিতে চাষ করে ব্যক্তি পর্যায়ে সর্বোচ্চ বোরো চাষি বকুল বড়ুয়ার পাকা ধান কেটে দিলেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর নির্দেশে সম্প্রতি ধানকাটা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেষ বিষয়ক সম্পাদক ও পশ্চিম গুজরা ইউপি চেয়ারম্যান লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, সহ-প্রচার সম্পাদক মফজল হোসেন, সাবেক সহ-সভাপতি ও পূর্ব গুজরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ডা.স্বপন বড়ুয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হোসেন মাহমুদ, অর্থ সম্পাদক শেখ মুজিবুর রহমান, রাউজান উপজেলা দক্ষিনের সাংগঠনিক সম্পাদক সাফায়েত হোসেন তৌহিদ, ফয়সাল মাহমুদ তৃষাদসহ স্থানীয় যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।
আনোয়ারা : আনোয়ারায় করোনার কারণে লকডাউন চলাকালে শ্রমিক সংকটে পড়ে ধান কাটতে না পারা কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলেন বারখাইন ইউনিয়ন যুবলীগ। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সম্প্রতি বারখাইন গ্রামের একটি বিলে তারা এ ধানকাটা কর্মসূচি পালন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন আনোয়ারা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক এরশাদ আলী সোহেল। এ সময উপস্থিত ছিলেন মো. বাবুল, এস এম নাছির উদ্দিন, মো. মুবিন, এমরান গণি জুয়েল, নিল মণি বাবু, আসলাম উদ্দিন, মো. সাগর, মো. ফারুক প্রমুখ। করোনাকালনি লকডাউনে শ্রমিক সংকটের এই দিনে যুবলীগরে এই মানবিক উদ্যোগে সন্তুষ্ট স্থানীয় কৃষকরা। কৃষক আবুল হোসেন বলেন, করোনার কারণে একদিকে চলছে লকডাইন। সেজন্য বাইরের শ্রমিকরা আসতে না পারায় জমির পাকা ধান কাটা নিয়ে বেশ চিন্তিত ছিলাম। এসময় এগিয়ে এলেন যুবলীগের ভাইয়েরা। তাদের এই সহযোগিতা কখনো ভুলবনা। উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহŸায়ক এরশাদ আলী সোহেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী কৃষকের ধান কেটে দিতে যুবলীগকে নির্দেশ দিয়েছেন। কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্দেশে ও আনোয়ারা উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক শওকত ওসমানের দিক-নির্দেশনায় আমরা প্রত্যেক ইউনিয়নে অসহায় কৃষকদের ধান কেটে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছি। যেসব কৃষক শ্রমিকদের অভাবে ধান কাটতে পারছেন না। তারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা তাদের ধান কেটে দিব।
কাপ্তাই : প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সভাপতি সমীর চন্দের নির্দেশে এবং রাঙামাটির সাংসদ দীপংকর তালুকদারের সার্বিক দিক-নির্দেশনায় কাপ্তাই উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় গত ১ মে কৃষকের পাকা ধান কেটে দিল রাঙামাটি জেলা ও কাপ্তাই উপজেলা কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা। এদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার চন্দ্রঘোনা ইউনিয়নের রেশম বাগানের তনচংগা পাড়া এলাকায় উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক সুধীর তালুকদারের জমির পাকা ধান কেটে দিয়ে সাহায্য করে কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা। এ ধান কাটা কার্যক্রমে রাঙামাটি জেলা কৃষক লীগের সভাপতি মো. জাহেদ আক্তার, সিনিয়র সহ-সভাপতি শান্তনা চাকমা, নিশিথ বরণ তালুকদার, যুগ্ম সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন স্বপন, প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক অরুন ধর, কুঠির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক সুবর্ণ ভট্টাচার্য, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সরোয়ার হোসেন, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক সুধীর তালুকদার, সহ-সভপতি সুব্রত বিকাশ তনচংগা, যুগ্ম সম্পাদক আবু তালেব, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক শম্ভু বিশ্বাস, সমবায় সম্পাদক মো. আলম, সদস্য মো. ঈদ্রিজ আলী, চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন কৃষকলীগ সভাপতি আক্তার হোসেন, রাইখালী ইউনিয়ন সভাপতি মো. জাকারিয়া, ওয়াগগা ইউনিয়ন সম্পাদক সাধন তনচংগ্যাসহ জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন কৃষকলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মী উপস্থিত থেকে ধান কাটা কার্যক্রমে অংশ নেয়। রাঙামাটি জেলা কৃষকলীগের সভাপতি মো. জাহেদ আক্তার জানান, দুর্যোগ ও দু:সময়ে সবসময় কৃষকের পাশে কৃষকলীগ ছিল এবং সবসময় থাকবে। কৃষকরা যাতে তাদের জমির ধান কাটা নিয়ে বিপাকে না পড়ে, সেজন্য কৃষকলীগের পক্ষ থেকে তাদের সর্বাত্মক সহযোগীতা করা হবে।