কৃষকের ক্ষতি করে পেঁয়াজ আমদানি নয়: কৃষিমন্ত্রী

13

পূর্বদেশ ডেস্ক

দেশে পেঁয়াজের সংকট নেই দাবি করে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, কৃষকের ক্ষতি করে পেঁয়াজ আমদানি করবে না সরকার। ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট আর মধ্যস্বত্বভোগীদের কারণে বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়ছে বলেও মন্তব্য করেন কৃষিমন্ত্রী।
গতকাল মঙ্গলবার পাবনার সুজানগর উপজেলায় বাজার ও কৃষকের ঘরে পেঁয়াজ মজুদের প্রকৃত অবস্থা পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।
কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘সাধারণ মানুষের প্রশ্ন আশ্বিন-কার্তিক মাস এলেই কেন পেঁয়াজের ঘাটতি হয়, দাম অস্বাভাবিক হয়? পেঁয়াজ নিয়ে কেন নানারকম রাজনীতি শুরু হয়? আর ঈদ এলেই ব্যবসায়ীরা নানা ষড়যন্ত্র করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দেয়’।
ঈদের আগে থেকে পেঁয়াজের হঠাৎ বাড়তি দর ঈদ শেষে ছুটতে শুরু করে ‘রকেট গতিতে’। সরকারি সংস্থা টিসিবির তথ্য বলছে, এক মাসের মধ্যে পেঁয়াজের দর ৩০ টাকা থেকে ৮০ টাকায় পৌঁছে যায়।
এই পরিপ্রেক্ষিতে গত রবিবার বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সাংবাদিকদের জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আমদানির বিকল্প নেই। রান্নার উপকরণটি আমদানি করতে কৃষি মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কৃষি মন্ত্রণালয় তাদেরকে ‘সব কিছু বিবেচনায় নিয়ে’ দ্রুত জানাবে বলেছে।
এর মধ্যে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক জানালেন, কৃষক ও ভোক্তার স্বার্থ বিবেচনা করে পেঁয়াজ আমদানির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি, পেঁয়াজের সংরক্ষণের সময় কিভাবে বাড়ানো যায়। আমরা আধুনিক সংরক্ষণাগার স্থাপন করেছি। আমরা যদি সফল হই তাহলে দেশের চাহিদা মিটিয়ে পেঁয়াজ রপ্তানি করতে পারব। গত মৌসুমে আমাদের কৃষকরা পেঁয়াজের দাম পায়নি। অনেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়েছে। ফলে অনেকেই এবার পেঁয়াজ চাষ করেনি। এতে দুই থেকে তিন লাখ টন পেঁয়াজ উৎপাদন কম হয়েছে’।
তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করে দেখেছেন, এখনও পেঁয়াজের ভালো মজুদ রয়েছে। তাই দাম বাড়ার কথা নয়। ক্রেতারা ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে বিভ্রান্ত হবেন না। আশা করছি, সরকারের পদক্ষেপে দ্রুত দাম নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে’।
পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞার ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ নেই। দেশের সার্বভৌমত্বের উপর আঘাত সরকার মেনে নেবে না। কে নিষেধাজ্ঞা দিল, কে ভয় দেখাল, চক্ষু রাঙাল তা দেখে সিদ্ধান্ত হবে না। ১৭ কোটি মানুষের স্বার্থের কথা বিবেচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে’। খবর বিডিনিউজের
এর আগে উপজেলা কৃষি সম্প্রপ্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ও উন্নয়ন সংস্থা আশার কারিগরি সহায়তায় স্থাপিত এয়ার ফ্লো চেম্বার সিস্টেমে আধুনিক পেঁয়াজ সংরক্ষণাগার এবং সনাতন পদ্ধতির সংরক্ষণাগার পরিদর্শন করেন কৃষিমন্ত্রী।