কারখানার চাকা চলছে, চলবে : মন্নুজান

238

রাজধানীর শ্রম ভবনে অনুষ্ঠিত সরকার, গার্মেন্ট মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় পরিস্থিতি বুঝে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারখানাগুলোর চাকা চলছে, চলবে। এমন মন্তব্য করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান। শনিবার বিকালে রাজধানীর বিজয় নগরে অবস্থিত শ্রমভবনে সরকার, মালিক ও শ্রমিকদের এই ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে এ তথ্য জানান তিনি। বৈঠক শেষে মন্নুজান সুফিয়ান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, কারখানাগুলোর চাকা চলছে, চলবে। এই মুহূর্তে কারখানা বন্ধ নয়। তবে সতর্কাবস্থায় কারখানাগুলো খোলা রাখা হবে। শ্রমিকদের নিরাপত্তা বজায় রাখতে হবে। এর জন্য যেসব পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন সেসব পদক্ষেপ নিয়ে কারখানা চালাতে হবে। রবিবার (২২ মার্চ) সচিবালয়ে আবারও ত্রিপক্ষীয় বৈঠক হবে। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। ত্রিপক্ষীয় সভায় বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক, বিকেএমইএ সভাপতি সেলিম ওসমান, ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহম্মদ হাতেম, বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী, শ্রমিক নেতা ফজলুর রহমান মন্টুসহ সংশি�ষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।
বিজিএমইএ’র সভাপতি ড. রুবানা হক জানিয়েছেন, বৈঠকে কারখানা বন্ধ করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়নি। নতুন সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত কারখানাগুলো আগের মতোই সতর্কতার সঙ্গে চলবে।
এ প্রসঙ্গে আব্দুস সালাম মুর্শেদী জানান, বাংলাদেশের ৭০ শতাংশ পোশাক যায় ইউরোপের বাজারে। করোনা ভাইরাসের কারণে ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে পণ্য পাঠানো যাচ্ছে না। অর্ডার বাতিল হয়ে গেছে। আমরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে আছি। এখন আমরা ক্রেতা ও সরকারি সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে আছি। বার্তা সংস্থার খবর