কর্ণফুলীতে লোকাল ট্যাক্সিতে ভাড়া বাড়লো ৩ টাকা

33

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির কারণে কর্ণফুলীতে লোকাল যাত্রীবাহী সিএনজিতে ভাড়া নির্ধারণ করে সমিতির নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ। কিন্তু ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন নিয়ে তৈরি হয় নানা জটিলতা। রশি টানাটানি আর জটিলতায় গ্যাসের দাম বৃদ্ধির কারণে খরচ বেড়ে যাওয়ায় অনেক চালক লোকাল ভাড়ায় সিএনজি চালাতে অপারগতা প্রকাশ করে। এ কারণে যাত্রীদের ভোগান্তিতে নাভিশ্বাস উঠে। যাত্রী স্বার্থ রক্ষা কমিটি ভাড়া না বাড়ানোর পক্ষে অবস্থান নেয়। অন্যদিকে আর্থিক ক্ষতিতে লোকাল ভাড়ায় সিএনজি চালাতে অপারগতা প্রকাশ করে অনেক সিএনজি চালক। এরই মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরী, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী রনি, উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, মিল্কভিটার পরিচালক ও যুবলীগ নেতা নাজিম উদ্দিন হায়দার সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেন। সমিতির ৪০০ চালক গতকাল শুক্রবার সকালে স্থানীয় সাংসদ ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের দ্বারস্থ হন। এ সময় সিএনজি চালকরা স্টেশন থেকে স্টেশন পর্যন্ত ৫ টাকা বাড়তি ভাড়া আদায়ের নির্দেশনা চান ভূমিমন্ত্রীর কাছে। এ সময় সকলের বক্তব্য শুনে মন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেন প্রতিটি স্টেশন থেকে স্টেশন পর্যন্ত ৩ টাকা হারে লোকাল ভাড়া বাড়তি নেয়া যাবে। ওই সিদ্ধান্তে খুশি হয় উভয় পক্ষ। এরপরই পুরোদমে সিএনজি চলাচল শুরু হয়।
জানা যায়, সরকার ১ জুলাই থেকে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ফলে কর্ণফুলীতে লোকাল ভাড়ায় পরিচালিত সিএনজি চালকরা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়। তারা ভাড়া বাড়াতে চাইলে যাত্রী স্বার্থ রক্ষা কমিটি তাতে বাধা দেয়। পরে ৬ জুলাই সিএনজি কার্যালয়ে যাত্রী স্বার্থ রক্ষা কমিটি ও সিএনজি চালক নেতৃবৃন্দের সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এরপরও শৃঙ্খলা ফেরেনি। এরপর যাত্রী স্বার্থ রক্ষা কমিটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে। ওই সময় ইউএনও সামশুল তাবরীজ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ রাখার আদেশ দিলে অনেক চালক আর্থিক ক্ষতিতে লোকাল ভাড়ায় সিএনজি চালনায় অস্বীকৃতি জানায়। এ কারণে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হলে তা সমাধানের উদ্যোগ নেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
এরই অংশ হিসেবে গতকাল মন্ত্রীর বাসভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত হন উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী রনি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, মিল্কভিটার পরিচালক নাজিম উদ্দিন হায়দার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম হক, সিএনজি সমিতির সভাপতি আবুল কালাম আবু, সহসভাপতি মোহাম্মদ ফরিদ, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম, অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ ফোরকান, সিনিয়র সদস্য মোহাম্মদ ইসমাইল, নুরুল আবছার, আনার আহমদ বাদশা, আবুল কালাম, মুজিবুর রহমানসহ সকল সদস্য।