করোনা প্রতিরোধে ‘কোভ্যাকসিন’ টিকায় আশাবাদী ভারত

7

ভারত বায়োটেকের উদ্ভাবিত ‘কোভ্যাকসিন’ টিকা নিয়ে আশার কথা শোনা যাচ্ছে। একটি সূত্রের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তৃতীয় ট্রায়ালের রিপোর্টে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে এই টিকা ৭৭ দশমিক ৮ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকরী। যদিও এর ফলাফল নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ভারতের নিজস্ব প্রযুক্তিতে উদ্ভাবিত টিকা কোভ্যাকসিন নিয়ে জল ঘোলা কম হয়নি। তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ হওয়ার আগেই ভারত বায়োটেকের উদ্ভাবিত এই টিকা চলতি বছরের শুরুতে অনুমোদন দেওয়া নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক।
তবে বছরের মাঝামাঝি সময়ে এসে শেষ হলো তৃতীয় ট্রায়াল। মানবদেহে কোভ্যাকসিন-এর তৃতীয় ট্রায়ালে ২৫ হাজার ৮শ’ জনের উপর প্রয়োগ করা হয় এই টিকা। সূত্র বলছে, ট্রায়ালের পরিসংখ্যান এবং ফলাফল প্রকাশে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া-ডিসিজিআই এর কাছে সুপারিশ করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত তাদের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। কোভ্যাকসিনের প্রথম অন্তবর্তী ট্রায়ালের ফলাফল প্রকাশ হয় মার্চ মাসে। তখন দেখা যায়, টিকাটি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ৮১ শতাংশ কার্যকরী। এই টিকার দু’টি ডোজ নেওয়ার পর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আশঙ্কা ১০০ শতাংশ থাকে না বলেও জানা যায়। গত মাসে ভারত বায়োটেক জানিয়েছিল, আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে কোভ্যাকসিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লিউএইচও’র অনুমোদন পেতে তারা আশাবাদী। ভারতে গণহারে টিকাদান কার্যক্রম চলছে। সংক্রমণ রোধে দেশের সবাইকে টিকার আওতায় আনতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মোদি সরকার। গত কয়েকদিনে দেশটিতে সংক্রমণ লাখের নিচে নেমে আসায় কিছুটা স্বস্তি দেখা দিয়েছে জনমনে।